করোনায় আক্রান্ত দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী | বিশ্ব | DW | 18.06.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

করোনায় আক্রান্ত দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী

রেহাই পেলেন না দিল্লির স্বাস্থ্য়মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন। তাঁর করোনা হয়েছে। প্রবল জ্বর নিয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি। অন্যদিকে করোনার কারণে পুরীর রথযাত্রা বন্ধ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

প্রথমে তাঁর করোনাপরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। দ্বিতীয়বার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এলো। দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রীই করোনায় আক্রান্ত হলেন।

শুধু তিনিই নন, আপের আরো তিনজন বিধায়কের করোনা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের অফিসের দুই জন করোনায় আক্রান্ত। কেন্দ্রীয় সরকারি অফিস ও মন্ত্রকে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত ২৫০ জন কর্মী ও অফিসার। দিল্লি পুলিশের একজন অ্য়সিস্টেন্ট পুলিশ অফিসারও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে দিল্লিতে প্রশাসনে করোনার প্রভাব ভালোভাবেই টের পাওয়া যাচ্ছে।

সত্যেন্দ্র জৈন যতদিন চিকিৎসাধীন থাকবেন, ততদিন স্বাস্থ্য মন্ত্রকের অস্থায়ী দায়িত্বে থাকবেন উপ মুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া। ঘটনা হলো সত্যেন্দ্র জৈন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আগের কয়েক দিন মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল, সিসোদিয়া এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গেও বৈঠক করেছেন। লেফটানান্ট গভর্নর অনিল বৈজলের সঙ্গেও তাঁর বৈঠক হয়েছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রচুর অফিসারের সঙ্গেও তিনি  নিয়মিত বৈঠক করেছেন।

দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭ হাজার ছাড়িয়েছে। রাজধানীতে লকডাউন কার্যত তুলে দেওয়ার পর থেকে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অনেকটাই বেড়েছে। 

দিল্লির নয়টি স্টেশনে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য ট্রেনের কোচ লাগানো হয়েছে। সেখানেই করোনা আক্রান্তদের রেখে চিকিৎসা করা হবে। রাজ্য সরকার হল, হোটেল নিয়ে সেগুলিকে করোনা রোগীদের অস্থায়ী চিকিৎসাকেন্দ্রে রূপান্তরিত করছে। কারণ, দিল্লিতে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে আর রোগী ভর্তি করা যাচ্ছে না। তাছাড়া যে হারে রোগীর সংখ্যা বাড়ছে, তাতে ভবিষ্য়েতর কথা ভেবে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

পুরীর রথযাত্রা বন্ধ

পুরীতে জগন্নাথদেবের রথযাত্রা এই বছর বন্ধ করে দিলো সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি বলেছেন, ''রথযাত্রার অনুমতি দিলে জগন্নাথই আমাদের ক্ষমা করবেন না।'' সর্বোচ্চ আদালতের আশঙ্কা, রথযাত্রা হলে প্রচুর লোক করোনায় আক্রান্ত হবেন।

আগামী ২৩ জুন থেকে রথযাত্রা হওয়ার কথা ছিল। রথ থেকে উল্টোরথ পর্যন্ত সময়ে পুরীতে প্রায় দশ লাখ লোক আসেন। সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, জনস্বাস্থ্য ও নাগরিকদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে তাঁরা এই নির্দেশ দিচ্ছেন। 

সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতার অনুরোধ ছিল, মন্দির কর্তৃপক্ষকে ছোট করে রথয়াত্রা পালন করতে দেওয়া হোক। কিন্তু প্রধান বিচারপতি জানিয়ে দেন, ''আমাদের এ ব্যাপারে অনেক অভিজ্ঞতা আছে। যত ছোটই হোক, প্রচুর লোক ঠিক ভিড় করবে। রথযাত্রা পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।'' 

জিএইচ/এসজি(পিটিআই, এএনআই)

 

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন