করোনায় দেউলিয়ার মুখে হেয়ার ড্রেসার চেইন | বিশ্ব | DW | 02.12.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

করোনায় দেউলিয়ার মুখে হেয়ার ড্রেসার চেইন

করোনায় ব্যবসা মন্দা, তাই জার্মানির সবচেয়ে বড় হেয়ার ড্রেসার চেইন প্রায় দেউলিয়া৷ সেলুন ব্যবসা বাচিয়ে রাখতে আদালতে সাহায্যের আবেদন করেছে কিলার৷

কিছু দোকান বন্ধ এবং কর্মী ছাটাই হবে বলে জানিয়েছে জার্মানির হেয়ার ড্রেসার চেইন কিলার৷ দেউলিয়া হওয়া থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে সাহায্যের আবেদন করেছে কোম্পানিটি৷ এর ফলে তাদের বেশিরভাগ ব্যবসা বাঁচানো সম্ভব হবে বলে তারা আশা করছে৷ সেপ্টেম্বর মাসে কিলার হেয়ার ড্রেসার গ্রুপের চাওয়া সাহায্যের আবেদনের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে সম্মতি জানিয়েছে ভল্সবুর্গ শহরের একটি আদালত৷

১৯৪৮ সালে পারিবারিক ব্যবসা রিনার শুরু হয়, পুরো জার্মানিতে মোট ১,৩০০টি সেলুন রয়েছে তাদের যার কর্মীসংখ্যা প্রায় সাড়ে আট হাজার৷ ‘‘আমাদের প্রধান অগ্রাধিকার হচ্ছে, কর্মী ছাটাই না করে আগামীতে আমাদের ব্যবসা চালিয়ে যাওয়া৷’’ মঙ্গলবার জার্মানির সবচেয়ে বড় হেয়ারড্রেসার প্রতিষ্ঠান কিলার এক বিবৃতিতে জানায়৷ এই কোম্পানির সিইও মিশায়েল মেলজার মনে করেন তাদের সেলুন কোম্পানির পুনর্গঠনের সুবিধা রয়েছে৷ তিনি বলেন, ‘‘দুর্ভাগ্যবশত, আমাদের যেসব সেলুন এবং দোকান মুনাফা করতে ব্যর্থ হয়েছে সেগুলো বন্ধ করে দিতে হবে তবে কতগুলো দোকান বন্ধ করা হবে তা এখনো বলা যায় না৷’’ ২০১৯ সালে কিলার কোম্পানির আয় ছিলো ৩০০ মিলিয়ন ইউরো৷ করোনার প্রথম লকডাউনের পর থেকেই কোম্পানিটির ব্যবসায় মন্দা শুরু হয়৷ এ বছরের মধ্যেই সেলুন ব্যবসাকে আবার নতুন করে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা রয়েছে কোম্পানিটির৷

তবে কিলার সেলুন চেইনের পুনর্গঠন পরিকল্পনা অনুমোদিত হবে কিনা তার সিদ্ধান্ত দেবে আদালত ২০২১ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি৷

এনএস/কেএম (এএফপি, ডিপিএ)

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন