করোনা মোকাবিলায় ধর্ম হতে পারে হাতিয়ার | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 31.12.2020

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

করোনা মোকাবিলায় ধর্ম হতে পারে হাতিয়ার

করোনা ভাইরাসের সময়ে ধর্মকে সংযুক্ত করে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়েছে বাংলাদেশে৷ গুজব বা কুসংস্কার নয়, মহামারির সময়ে ধর্ম কীভাবে ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারে, তা নিয়ে সম্প্রতি একটি টকশো আয়োজন করে ডয়চে ভেলে৷

‘করোনা মেকোবেলায় ধর্ম’ পুস্তিকার কাভার পেজ

‘করোনা মেকোবেলায় ধর্ম’ পুস্তিকার কাভার পেজ

আন্তর্জাতিক সংস্থা আর্টিকেল ১৯ বাংলাদেশ-এর সহযোগিতায় চ্যানেল আইয়ে প্রচারিত টকশোটির শিরোনাম ছিল ‘করোনা মোকাবেলায় ধর্ম’৷

সেই টকশো উপলক্ষে বৃহস্পতিবার একটি পুস্তিকা বের করা হয়েছে৷

আলোচনায় বিশেষজ্ঞরা করোনা মোকাবেলায় ধর্ম কী ভূমিকা পালন করতে পারে, নারীরা কীভাবে এগিয়ে আসতে পারে সে বিষয়ে নিজেদের মতামত তুলে ধরেন৷ পুস্তিকায় নারী ও শিশুদের উপর করোনার প্রভাব, করোনা মোকাবেলায় ধর্ম ও ধর্মীয় নেতাদের এবং নারীসমাজের ভূমিকা কী হতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা রয়েছে৷

করোনার সময়ে বাংলাদেশে বেড়েছে নারী ও শিশু নির্যাতন৷ ইউনডিপি-বাংলাদেশের এক গবেষণার বরাত দিয়ে পুস্তিকাতে বলা হয়, ২০২০ সালের মার্চ-এপ্রিল মাসে তার আগের বছরের তুলনায় নারী ও শিশু নির্যাতন বেড়েছে ৫১ শতাংশ৷ 

করোনা মোকাবেলার সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টারের পরিচালক একেএম শামসুজ্জামান বলেন, করোনা ধরা পরার পর সরকার নানা পদক্ষেপ নিলেও প্রথমদিকে কিছুটা অসংগতি ছিল৷

এদিকে করোনা মোকাবেলায় ধর্মের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে গিয়ে বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মুফতি ওয়ালীউর রহমান খান বলেন,  করোনা বিষয়ে ছড়িয়ে পড়া নানা কুসংস্কার ধর্মের আলোকে এবং সাধারণ মানুষের সহযোগিতায় মোকাবেলা করা হয়েছে৷

আরআর/জেডএ