কনডম চুরি ঠেকাতে পাহারা মুম্বাইয়ে! | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 06.01.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সমাজ সংস্কৃতি

কনডম চুরি ঠেকাতে পাহারা মুম্বাইয়ে!

ভেন্ডিং মেশিন ভেঙে ছিঁচকে অপরাধীদের কনডম চুরির হিড়িকে উদ্বিগ্ন মুম্বাইয়ের এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ কর্মীরা৷ উপায়ন্তর না দেখে এখন পাহারা বসানো হচ্ছে রাস্তায় রাস্তায় কনডম ভেন্ডিং মেশিনে৷

কনডমের প্যাকেট

কনডমের প্যাকেট

ভারতের বাণিজ্যক রাজধানী মুম্বাইয়ে এইচআইভি/এইডস প্রতিরোধ কর্মসূচির আওতায় প্রায় ৩,০০০ এরও বেশি কনডম ভেন্ডিং মেশিন বসানো হয়েছে৷

যৌন সংশ্রব নিরাপদ করার লক্ষ্যে সহজে ও সুলভে কনডম প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে আন্তঃরাজ্য ট্রাকচালক এবং যৌনকর্মীদের আনাগোনা বেশি এমন স্পর্শকাতর এলাকাগুলোতে রাস্তার বিভিন্ন মোড়ে এসব মেশিন বাসানো হয়৷ ভারতে এইডস ছড়িয়ে পড়ার অন্যতম বাহক বলে মনে করা হয় এসব আন্তঃরাজ্য ট্রাকচালকদের৷

উদ্যোক্তরা জানাচ্ছেন, ৩,০০০ মেশিনের মধ্যে প্রায় ৫০০ মেশিনও ভেঙ্গে ফেলেছে ছিঁচকে অপরাধীরা৷ তাঁদের ধারণা অনেক ক্ষেত্রে কেবলমাত্র ফুর্তি করার জন্য কিংবা খুচরা পয়সার প্রয়োজনে অথবা একেবারে বিনামূল্যে কনডম পেতেই এসব মেশিন ভাঙা হচ্ছে৷ এমনকী দিওয়ালি উৎসবে আতশবাজির সময়ে পটকা ফাটিয়ে অনেক মেশিনের ক্ষতি করা হয়েছে৷

Ein Mann bemalt seinen Körper mit roten Schleifen und Botschaften anlässlich einer Aufklärungskampagne zu HIV

বিশ্ব এইডস দিবসে এক ভারতীয়

বিভিন্ন এনজিও'র সঙ্গে সহযোগিতায় এসব মেশিন সরবরাহকারী ‘হিন্দুস্তান ল্যাটেক্স ফ্যামিলি প্ল্যানিং প্রমোশন ট্রাস্টস্' এর রাজেশ নাইনাকাওয়াল অবশ্য মনে করেন, কনডম ভেন্ডিং মেশিন ভাঙার অন্য অনেক কারণও থাকতে পারে৷ তিনি জানান, ওইসব স্পশর্কাতর এলাকায় ট্রাকচালক ও যৌনকর্মীদের পাশাপাশি অনেক মাদকাসক্তেরও আনাগোনা রয়েছে৷ যদিও একটা ভেন্ডিং মেশিনে কখনোই ১০০ রুপির বেশি জমা থাকে না৷ কিন্তু ছিঁচকে অপরাধীরা হয়তো মেশিন ভেঙ্গে মাদক কেনার জন্য সেগুলো বিক্রি করতে পারে৷

নাইনাকাওয়াল বলেন, ‘‘কেউ কেউ হয়তো বিনামূল্যে কনডম পেতেই ভাঙ্গছে আবার অনেকে হয়তো এই ধারণার বিরোধিতা করতেই এটা ভেঙে থাকতে পারে৷ কেননা কনডম ব্যবহার নিয়ে এখনও এই সমাজে এক ধরণের সংকোচ রয়ে গেছে৷''

উদ্যোক্তারা এখন বাধ্য হয়েই বেশি স্পর্শকাতর এলাকাগুলোতে কনডম ভেন্ডিং মেশিনে পাহারা বসানোর চেষ্টা করছেন৷ মহারাষ্ট্র রাজ্যের রাজধানী মুম্বাই ভারতের সবচেয়ে বেশি এইডস আক্রান্ত এলাকাগুলোর অন্যতম৷

প্রতিবেদক: মুনীর উদ্দিন আহমেদ

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন