কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাদের ′সত্যাগ্রহ′ | বিশ্ব | DW | 23.12.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাদের 'সত্যাগ্রহ'

অবশেষে এনআরসি ও নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে রাস্তায় নামলেন কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা। সোনিয়া, মনমোহন, রাহুল, প্রিয়ঙ্কা সহ কংগ্রেসের মুখ্যমন্ত্রী, প্রবীণ নেতারা রাজঘাটের কাছে প্রতিবাদ জানালেন৷

এর আগে দিল্লির ইন্ডিয়া গেটের সামনে দু-ঘন্টা বসে থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বা সিএএ র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী৷ কিন্তু এই প্রতীকী প্রতিবাদ ছাড়া কংগ্রেস শীর্ষ নেতৃত্বকে সেভাবে রাস্তায় নামতে দেখা যায়নি। অবশেষে সেই খামতিটুকু দূর করতে উদ্যোগী হলেন সোনিয়া গান্ধী৷ রাজঘাটের কাছে এ দিন কংগ্রেস নেতারা 'সত্যাগ্রহ' করলেন৷ 'সত্যাগ্রহ' মানে সোনিয়া, মনমোহন, রাহুল, প্রিয়ঙ্কা থেকে শুরু করে একের পর এক কংগ্রেস নেতা সংবিধানের প্রস্তাবনা বিভিন্ন ভাষায় পড়লেন৷ সামনে জড়ো হওয়া কংগ্রেস কর্মীরা জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে স্লোগান দিয়েছেন৷ পোস্টার তুলে দেখিয়েছেন৷

আর নেতারা বুঝিয়েছেন, তাঁরা সংবিধান রক্ষার স্বার্থে এ ভাবে প্রতিবাদ করেছেন, যেখানে বলা হয়েছে, সব ভারতীয়র সমানাধিকার আছে৷ সকালেই রাহুল গান্ধী টুইট করে বলেছিলেন, তিনি তিনি রাজঘাটে বেলা তিনটের সময় বিক্ষোভ দেখাতে যাবেন৷  দেশের য়ুব ও ছাত্রদের প্রতি তাঁর আবেদন ছিল, তাঁরা যেন ঘৃণা ও হিংসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সামিল হন। 

তবে শুধু দিল্লিতে নয়, তামিলনাড়ুতে ডিএমকের নেতৃত্বে বিশাল প্রতিবাদ সভা হয়েছে৷ বাঙ্গালুরুতেও জয়েন্ট অ্য়কশন কমিটির ডাকে ইদগা ময়দানে সিএএ বিরোধী প্রতিবাদে জনসমুদ্র ছিল৷ রবিবার প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেছিলেন, তাঁর সরকার দেশজুড়ে এনআরসি করার কথা ভাবছে না সোমবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং বলেছেন, প্রতিবেশী দেশ থেকে মুসলিমরাও নাগরিকত্বের আবেদন জানাতেই পারেন৷ তাতে কোনও আইনগত বাধা নেই৷ তা সত্ত্বেও প্রতিদিনই প্রতিবাদ হচ্ছে এবং বিভিন্ন শহরে তা ছড়াচ্ছে৷

এরই মধ্যে এ দিন কলকাতায় সিএএর সমর্থনে বিশাল মিছিল করেছ বিজেপি৷ সেই মিছিলের নেতৃত্ব দেন বিজেপির কার্যকরি সভাপতি জেপি নাড্ডা৷ তাঁর দাবি, এই আইনের ফলে মতুয়ারা, নমঃশূদ্ররা, রাজবংশীরা নাগরিকত্ব পাবে৷ কেন তার বিরোধিতা করা হচ্ছে৷

জিএইচ/এসজি (এনডিটিভি)

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন