ওলাফ শলৎস কি নোংরা প্রচারণার শিকার? | বিশ্ব | DW | 20.09.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

ওলাফ শলৎস কি নোংরা প্রচারণার শিকার?

জার্মানির পরবর্তী চ্যান্সেলর দৌড়ে এগিয়ে আছেন সামাজিক গণতন্ত্রী এসপিডি দলের নেতা ওলাফ শলৎস৷ তিনি বর্তমান জোট সরকারে অর্থমন্ত্রী ও ডেপুটি চ্যান্সেলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন৷

সোমবার শলৎসকে কয়েকজন সাংসদদের মুখোমুখি হতে হয়েছিল৷ গত ৯ সেপ্টেম্বর অর্থ মন্ত্রণালয়ে অভিযান চালিয়েছিল পুলিশ৷ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সংস্থা ‘ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট' বা এফআইইউর বিরুদ্ধে চালু থাকা এক তদন্তের অংশ হিসেবে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়৷

অসনাব্রুক শহরের পাবলিক প্রোসিকিউটর এই তদন্ত চালাচ্ছেন৷ অসনাব্রুকের একটি ব্যাংক আফ্রিকার বিভিন্ন স্থানে ১৭ কোটি টাকার বেশি পাঠানোর বিষয়টি এফআইইউকে জানিয়েছিল৷ কিন্তু এফআইইউ সেই বিষয়টি পুলিশ কিংবা পাবলিক প্রোসিকিউটের কাছে পাঠায়নি৷ এই না পাঠানোর সঙ্গে কে বা কারা জড়িত তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে৷

এই তদন্তের অংশ হিসেবে এফআইইউ ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে বিনিময় হওয়া ইমেল সংগ্রহ করতে ঐ পুলিশি অভিযান চালানো হয়৷ এই অভিযানের ব্যাপারে অসনাব্রুকের পাবলিক প্রোসিকিউটর অফিস থেকে একটি প্রেস রিলিজ ইস্যু করা হয়৷ তাতে এমন ধারণা দেয়া হয় যে, ওলাফ শলৎসের বিরুদ্ধেও তদন্ত চলছে৷

উল্লেখ্য, এফআইইউ অর্থ মন্ত্রণালয়ের অন্তর্গত একটি সংস্থা৷

রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত?

পুলিশের অভিযান সম্পর্কে জানতে জার্মান সংসদের ফাইন্যান্স কমিটি সোমবারের বৈঠকটি ডেকেছিল৷ মুক্ত গণতন্ত্রী এফডিপি, বাম ও সবুজ দল এই বৈঠকের অনুরোধ করেছিল৷ চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের খ্রিষ্টীয় গণতন্ত্রী সিডিইউ দল খুশি মনে এই অনুরোধ গ্রহণ করেছে বলে মনে হয়েছে৷

এসপিডি মনে করছে আগামী রোববার অনুষ্ঠিত হতে যাওয়ার নির্বাচনের কিছুদিন আগে এই অভিযান চালানোর বিষয়টি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত৷ এর পেছনে সিডিইউর হাত আছে বলে তারা মনে করছে৷ তাদের এমন ধারণার কারণ, সবশেষ জরিপ বলছে রোববারের নির্বাচনে সিডিইউর চেয়ে এসপিডি কয়েক শতাংশ ভোট বেশি পাবে৷

তাছাড়া অসনাব্রুকের পাবলিক প্রোসিকিউটর কার্যালয়ের যিনি প্রধান তিনি একসময় লোয়ার সাক্সোনি রাজ্যের একটি শহরের সিডিইউর প্রধান ছিলেন৷ একই সময়ে তিনি ঐ রাজ্যে বিচার মন্ত্রণালয়ের অফিস ম্যানেজার ছিলেন৷ বর্তমানে তিনি লোয়ার সাক্সোনি রাজ্য সংসদের ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে আছেন৷

সাবিনে কিনকার্ৎস/জেডএইচ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়