ওমিক্রন: সব রাজ্যে ওয়ার রুম খোলার নির্দেশ কেন্দ্রের | বিশ্ব | DW | 22.12.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

ওমিক্রন: সব রাজ্যে ওয়ার রুম খোলার নির্দেশ কেন্দ্রের

ডেল্টার থেকেও তিনগুণ বেশি ছোঁয়াচে ওমিক্রন। তাই প্রতিটি রাজ্যে ওয়ার রুম খোলার নির্দেশ দিলো মোদী সরকার।

রাজ্যগুলিকে রাতে কার্ফিউ জারি করার পরামর্শ মোদী সরকারের।

রাজ্যগুলিকে রাতে কার্ফিউ জারি করার পরামর্শ মোদী সরকারের।

ভারতে এখনো ওমিক্রন প্রবলভাবে ছড়ায়নি। সারা দেশে ২১৩ জন ওমিক্রনে আক্রান্ত। তার মধ্যে দিল্লি ও মুম্বইতে শতাধিক আক্রান্ত। এছাড়া তেলেঙ্গানা, রাজস্থান, গুজরাট, কর্ণাটক, কেরালাতেও ওমিক্রন ছড়িয়েছে। এই অবস্থায় কোনো ঝুঁকি নিতে চায় না কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় প্রতিটি রাজ্য সরকারকে চিঠি লিখে জানিয়েছে, তারা যেন ওয়ার রুম খোলে। হাসপাতালে ৪০ শতাংশ বেডে করোনা আক্রান্ত রোগী থাকলেই সঙ্গে সঙ্গে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়। রাতে কার্ফিউ চালু করা হয়। কনটেনমেন্ট জোনগুলিকে চিহ্নিত করা হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ওমিক্রন ছাড়াও ডেল্টা ভাইরাসে মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। তাই সব তথ্য নিরন্তর বিশ্লেষণ করা দরকার। ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া দরকার। আগে থেকেই কড়াকড়ি চালু করা উচিত।

কেন্দ্রের পরামর্শ, রাজ্যগুলি যেন বাড়ি বাড়ি ঘুরে করোনায় আক্রান্তদের খবর নেয় এবং তাদের সংস্পর্শে যারা এসেছেন, তাদের খুঁজে বের করে ও নজর রাখে। সেই সঙ্গে করোনা পরীক্ষার সংখ্যাও অনেকটাই বাড়াতে হবে। আর বাড়াতে হবে টীকাকরণের হার।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ছয় হাজার ৩১৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে কেরালায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৭৪৮ জন এবং মহারাষ্ট্রে ৮২৫ জন। দেশজুড়ে ৩১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। এই নিয়ে পরপর ২৬ দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দশ হাজারের নীচে থাকলো।

জিএইচ/এসজি (পিটিআই, এনডিটিভি)