ওমিক্রনের হাত থেকে বাঁচাতে পারে ফাইজারের বুস্টার | বিশ্ব | DW | 09.12.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

ওমিক্রনের হাত থেকে বাঁচাতে পারে ফাইজারের বুস্টার

ফাইজার ও বায়োনটেকের বুস্টার ডোজ ২৫ গুণ শক্তিশালী। ওমিক্রন প্রজাতির হাত থেকেও বুস্টার ডোজ রক্ষা করতে পারে বলে রিপোর্ট পেশ করেছে সংস্থা দুইটি।

বুধবার তাদের রিপোর্ট পেশ করেছে ফাইজার ও বায়োনটেক। তাদের টিকা ইউরোপের বহু দেশে দেওয়া হয়েছে। এখন তাদের তৈরি টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে। বুধবার যে রিপোর্ট তারা দিয়েছে, তাতে বলা হয়েছে, বুস্টার নেওয়ার পর রক্তপরীক্ষা করে দেখা গেছে, করোনার অ্যান্টিবডি ২৫ গুণ কার্যকরী হচ্ছে ওই ডোজে। শুধু তাই নয়, ওমিক্রন বিষয়ে এখনো পর্যন্ত যা জানা গেছে, তার নিরিখেও ওই বুস্টার ডোজ কার্যকরী। তবে তাদের দাবির আরো বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা প্রয়োজন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

জার্মানির নতুন সরকার অবশ্য লাখ লাখ বুস্টার ডোজের অর্ডার দিয়ে দিয়েছে। আগামী কয়েকমাসে করোনা ঠেকাতে বুস্টার ডোজ দেওয়ার পরিমাণ অনেক বাড়ানো হবে বলে নতুন সরকার ঘোষণা করেছে।

ইউরোপে করোনার চতুর্থ ঢেউ শুরু হয়েছে। তারই মধ্যে ওমিক্রন প্রজাতির করোনা চিন্তা বাড়িয়েছে। প্রাথমিক রিপোর্ট বলছে, এই প্রজাতি অনেক দ্রুত ছড়ায়। করোনার সংক্রমণ কমাতে জার্মান প্রশাসন বুস্টার ডোজের উপর ডোজ দিচ্ছে। তারই মধ্যে ফাইজারের দাবি সামনে এসেছে।

বিশেষজ্ঞরা অবশ্য বলছেন, ওমিক্রন নিয়ে এখনো সমস্ত তথ্য হাতে আসেনি। ফলে কোন টিকা তা রুখতে পারে, তা এখনই বলা কঠিন। টিকার প্রাথমিক দুইটি ডোজের পরেও যে ওমিক্রন হচ্ছে, তা স্পষ্ট। কিন্তু তৃতীয় ডোজ বা বুলস্টার ডোজ তা নিয়ন্ত্রণ আদৌ করতে পারে কি না, তা দেখার জন্য আরো পরীক্ষা দরকার।

বিশেষজ্ঞদের অন্য অংশের বক্তব্য, টিকা নেওয়ার পরেও করোনা হতে পারে। কিন্তু তার প্রভাব কম পড়বে। বুস্টার ডোজ নেওয়া থাকলে এমনিতেই অ্যান্টি বডি আরো বাড়বে। ফলে যে কোনো করোনার সঙ্গেই শরীর লড়াই চালাতে পারবে। ফলে বুস্টার ডোজ নিয়ে নিতে পারলে ভালো।

এসজি/জিএইচ (এএফপি, রয়টার্স)

সংশ্লিষ্ট বিষয়