ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে রাজি আওয়ামী লীগ | বিশ্ব | DW | 29.10.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে রাজি আওয়ামী লীগ

ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে বসতে রাজি হয়েছে আওয়ামী লীগ৷ সোমবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য দেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের৷

স্থানীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সংবাদ সম্মেলনে সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘‘আমাদের নেত্রী ঐক্যফ্রন্টের প্রস্তাবে রাজি এবং তাদের সঙ্গে সংলাপে বসবো৷''

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিলের আগেই সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দেন কাদের৷ তিনি বলেন, এতে করে রাজনৈতিক অঙ্গনে সুবাতাস বইবে৷

‘‘আজকে মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর নেত্রী আমাদের নিয়ে একটি অনির্ধারিত বৈঠক করেন,'' বলেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক৷ ‘‘উপস্থিত দলীয় নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করেন এবং সবার মতামত জানতে চান৷ অনির্ধারিত এ আলোচনায় সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, আমাদের নেত্রী ঐক্যফ্রন্টের প্রস্তাবে রাজি এবং তাদের সঙ্গে সংলাপে বসবো৷''

এর আগে বিএনপি বারবার সংলাপের আহ্বান জানালেও তাতে সাড়া দেয়নি আওয়ামী লীগ৷ সম্প্রতি সৌদি আরব থেকে ফেরার পর সংবাদ সম্মেলন করেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা৷ তখন সাংবাদিকরা ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপের বিষয়ে প্রশ্ন করেন৷ সেখানে শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘চিঠি পাইনি৷ পেলে এ ব্যাপারে মন্তব্য করবো৷''

রোববার সেই চিঠি পাওয়ার কথা স্বীকার করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘‘চিঠিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা (ড. কামাল হোসেন) সংলাপ করতে চেয়েছেন৷ এরই পরিপ্রেক্ষিতে দলের পক্ষ থেকে সংলাপের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷''

এই সংলাপ কারো চাপের মুখে নয় বলে দাবি করেন ওবায়দুল কাদের৷ বলেন, ‘‘আমাদের পক্ষ থেকে কাউকে ডাকিনি৷ ঐক্যফ্রন্টের নেতারা সংলাপ করতে চান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংলাপে রাজি হয়েছেন৷''

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সংলাপে শেখ হাসিনা নেতৃত্ব দেবেন বলেজানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক৷ তবে তারিখ ও স্থান এখনই জানাননি তিনি৷

ঐক্যফ্রন্টের দাবিগুলো সম্পর্কে প্রশ্ন হলে কাদের বলেন, সংলাপের পর জানা যাবে৷

ডয়চে ভেলে বাংলার কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, ড. কামাল হোসেন স্বাক্ষরিত আওয়ামী লীগকে দেয়া সংলাপের চিঠিতে লেখা হয়, ‘‘একটি শান্তিপূর্ণ ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে সকলের অংশগ্রহণ ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাথে একটি অর্থবহ সংলাপের তাগিদ অনুভব করছে এবং সে লক্ষ্যে আপনার কার্যকর উদ্যোগ প্রত্যাশা করছি৷''

জেডএ/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন