এ বছর ‘বিকল্প নোবেল′ পেলেন যাঁরা | বিশ্ব | DW | 26.09.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এ বছর ‘বিকল্প নোবেল' পেলেন যাঁরা

বিকল্প নোবেল পুরস্কারখ্যাত ‘রাইট লাইভলিহুড' পুরস্কার ২০১৭ জিতেছেন চারজন৷ তাঁরা হলেন ভারতের অ্যাটর্নি কলিন গনসালভেস, আজারবাইজানের খাদিজা ইসমাইলোভা, ইথিওপিয়ার ইয়েতনেবার্শ নিগুসি এবং মার্কিন অ্যাটর্নি রবার্ট এ বিলট৷

ভারতের অ্যাটর্নি কলিন গনসালভেস:

‘হিউম্যান রাইটস ল নেটওয়ার্ক' এইচআরএলএন-এর প্রতিষ্ঠাতা কলিন গনসালভেস৷ ভারতে এই নেটওয়ার্কের ২৮টি অফিস রয়েছে৷ এই প্রতিষ্ঠানের ২০০টি শক্তিশালী গ্রুপ গত ৩০ বছর ধরে ভারতের ক্ষতিগ্রস্ত, দলিত এবং ধর্মীয় ও আদিবাসী সংখ্যালঘু মানুষদের অধিকার আদায়ে কাজ করে যাচ্ছে৷

শুধু তাই নয়, এই প্রতিষ্ঠানটি স্বাস্থ্য, প্রজননের অধিকার এবং লিঙ্গ পরিচয়ের অধিকারের পাশাপাশি শিশু অধিকার এবং শিশু পাচার ও শিশু শ্রম রোধেও কাজ করে যাচ্ছে৷ রাইট লাইভলিহুড অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ‘‘ভারতের প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বা আইআইটি থেকে স্নাতক গনসালভেস ১৯৮৩ সালে আইন পাস করে আইনজীবী হিসেবে কাজ শুরু করেন৷ ২০০১ সালে সুপ্রিমকোর্টের বিচারক হিসেবে স্কুলগামী শিশুদের বিনামূল্যে খাবার চালু করার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি৷''

আজারবাইজানের খাদিজা ইসমাইলোভা:

খাদিজা ইসমাইলোভা, আজারবাইজানের প্রথম সারির অনুসন্ধানী প্রতিবেদক৷ প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ-এর পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি নিয়ে তাঁর অনুসন্ধানী প্রতিবেদন রীতিমতো তাঁকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছিল৷

২০১৫ সালে ঐ প্রতিবেদন প্রকাশের পর পরই ৪১ বছর বয়সি খাদিজা অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা, কর ফাঁকি এবং ক্ষমতার অপব্যবহারের মামলায় জেলে যান৷ ১৮ মাস কারাভোগের পর সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছেন তিনি এবং যথারীতি নানা অনুসন্ধান নিয়ে লিখে যাচ্ছেন নীর্ভিক এই কলম সৈনিক৷

ইথিওপিয়ার ইয়েতনেবার্শ নিগুসি:

ইথিওপিয়ার আইনজীবী এবং মানবাধিকার কর্মী ইয়েতনেবার্শ নিগুসি'র চোখের আলো নিভে যায় মাত্র ৫ বছর বয়সে৷ কিন্তু তাঁর মনের আলো সবসময় সপ্রতিভ ছিল৷ আর সেই আলোতেই তিনি চালিয়ে গেছেন মানবাধিকার প্রচারণা৷ ইথিওপিয়ার প্রতিবন্ধী মানুষের অধিকারের জন্য লড়ে যাচ্ছেন তিনি৷

ইথিওপিয়া থেকে শুরু হলেও তাঁর এই লড়াই তিনি ছড়িয়ে দিয়েছেন বিশ্বের আরো অনেক দেশে৷ ৩৫ বছর বয়সি এই নারী ইথিওপিয়ার প্রথম তিনজন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী আইন শিক্ষার্থীর একজন৷ আদ্দিস আবাবা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন পাস করেছেন তিনি৷ ইথিওপিয়ার সেন্টার ফর ডিসঅ্যাবিলিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা তিনি৷ এছাড়া বর্তমানে আন্তর্জাতিক সংস্থা লাইট ফর দ্য ওয়ার্ল্ড-এর হয়ে কাজ করছেন৷ এই সংস্থাটি বিশ্বে প্রতিবন্ধীদের জন্য কাজ করে৷

মার্কিন অ্যাটর্নি রবার্ট এ বিলট:

৫২ বছর বয়সি মার্কিন অ্যাটর্নি রবার্ট এ বিলট গত তিন দশক ধরে পরিবেশ আইন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন৷ দূষণ সৃষ্টি করে এমন রাসায়নিক, আর্বজনা নিষিদ্ধ করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন মামলা পরিচালনা করছেন তিনি দীর্ঘ সময় ধরে৷

এর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চলা আলোচিত একটি মামলা হলো, পশ্চিম ভার্জিনিয়ার পানীয় জলে বিষাক্ত রাসায়নিকের উপস্থিতি সংক্রান্ত৷ রাইট লাইভলিহুড অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ‘‘বিলটের কাজ ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ এবং পরিবেশ রক্ষায় ও এ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতে তিনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন৷''

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন