এ বছরের জলবায়ু সম্মেলন কেন গুরুত্বপূর্ণ? | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 01.12.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পরিবেশ

এ বছরের জলবায়ু সম্মেলন কেন গুরুত্বপূর্ণ?

সোমবার থেকে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে জাতিসংঘের আয়োজনে দুই সপ্তাহব্যাপী জলবায়ু সম্মেলন শুরু হচ্ছে৷ কনফারেন্স অফ দ্য পার্টিজ বা কপ নামে পরিচিত এ বছরের সম্মেলন নানা কারণে গুরুত্বপূর্ণ৷

জাতিসংঘের আয়োজনে প্রতিবছরই জলবায়ু সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে৷ কিন্তু সব কপই সমান গুরুত্ব পায় না৷ তবে কপ২৫ নামে পরিচিত এবারের সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ, কারণ, ২০১৫ সালের প্যারিস চুক্তি অনুযায়ী, ২০২০ সালের মধ্যে বিশ্বের সব দেশকে ‘ন্যাশনাল ক্লাইমেট অ্যাকশন প্ল্যান' তৈরির কাজ শেষ করতে হবে৷ অর্থাৎ, হাতে আছে আর মাত্র এক বছর৷ ফলে যেসব দেশ এখনো এই কাজ শেষ করতে পারেনি, তাদের উপর চাপ তৈরির শেষ সুযোগ এবারের সম্মেলন৷

প্যারিস চুক্তিতে দেশগুলো বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি প্রাক-শিল্পযুগের (১৮৫০-১৯০০) চেয়ে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসের অনেক নীচে রাখতে সম্মত হয়েছে৷ তবে তাপমাত্রা বৃদ্ধি দেড় ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখার চেষ্টার কথাও বলা হয়েছে৷

এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য ২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন ডাই-অক্সাইড নির্গমণ ৪৫ শতাংশ কমানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে৷ এছাড়া ২০৫০ সালের মধ্যে কার্বন নিরপেক্ষ হওয়ার লক্ষ্যও নির্ধারণ করা হয়েছে৷

তবে এসব উদ্দেশ্য পূরণে রাজনীতিবিদরা যথেষ্ট কাজ করছেন না বলে গতবছর থেকে আন্দোলন শুরু করেছেন সুইডিশ শিক্ষার্থী গ্রেটা টুনব্যার্গ৷ প্রতি শুক্রবার স্কুলে না গিয়ে সুইডিশ সংসদের সামনে বসে আন্দোলন করতেন তিনি৷ তাঁর এই আন্দোলন একসময় সারা বিশ্বের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে৷

গত সেপ্টেম্বরে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সম্মেলন চলার সময় প্রায় ৭০ লাখ মানুষ বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন৷ 

ওয়ার্ল্ড রিসোর্সেস ইন্সটিটিউট-এর প্রধান অ্যান্ড্রু স্টিয়ার মনে করছেন, জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বেড়েছে৷ ফলে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশে বিষয়টি আলোচনায় প্রাধান্য পাচ্ছে৷

এছাড়া, ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশ ও শহর ‘ক্লাইমেট এমার্জেন্সি' ঘোষণা করেছে৷ ইউরোপীয় পার্লামেন্টও ইউরোপে ‘ক্লাইমেট অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল এমার্জেন্সি' ঘোষণা করেছে৷ বৃহস্পতিবার এ সংক্রান্ত একটি বিল ৪২৯-২২৫ ভোটে পাস হয়েছে৷

তবে এই বিলে নির্দিষ্ট কোনো প্রকল্প বাস্তবায়নের কথা বলা হয়নি৷ শুধু প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নে পর্যাপ্ত বাজেট বরাদ্দ ও আইনি সহায়তা নিশ্চিত করতে ইউরোপীয় কমিশনকে আহ্বান জানানো হয়েছে৷

কপ২৫-এ যোগ দিতে গ্রেটা টুনব্যার্গ নিউইয়র্ক থেকে পাল তোলা নৌকায় করে ইউরোপে ফিরছেন৷ শুক্রবার তাঁর লিসবন পৌঁছার কথা থাকলেও প্রতিকূল আবহাওয়ার জন্য এখনও আসতে পারেননি৷ তবে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি তিনি ইউরোপে ঢুকতে পারেন বলে জানিয়েছে তার দল৷

জেডএইচ/এসিবি (রয়টার্স, ডিপিএ) 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন