এর্দোয়ানের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ছাত্র বিক্ষোভ | বিশ্ব | DW | 05.01.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

তুরস্ক

এর্দোয়ানের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ছাত্র বিক্ষোভ

ইস্তানবুলে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন রেক্টর নিয়োগ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট এর্দোয়ান। তাঁর সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ছাত্ররা

এর্দোয়ানের নিয়োগ করা রেক্টর পছন্দ হয়নি। তাই বিক্ষোভে ছাত্ররা। ইস্তানবুলে।

এর্দোয়ানের নিয়োগ করা রেক্টর পছন্দ হয়নি। তাই বিক্ষোভে ছাত্ররা। ইস্তানবুলে।

পথে নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করল ইস্তানবুলের বোগাজিচি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা। তাঁদের প্রতিবাদ নতুন রেক্টরের নিয়োগের বিরুদ্ধে। এই নিয়োগ করেছেন প্রেসিডেন্ট এর্দোয়ান

স্থানীয় মিডিয়া জানিয়েছে, পুলিশের সঙ্গে ছাত্রছাত্রীদের সংঘর্ষও হয়েছে। পুলিশ রাস্তায় ব্যারিকেড লাগিয়ে রেখেছিল। ছাত্রছাত্রীরা সেই ব্যারিকেড সরিয়ে এগিয়ে যেতে চায়। তখন পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় এবং প্লাস্টিক বুলেট ব্যবহার করে।

ক্ষমতাসীন দলের সঙ্গে যোগ

এর্দোয়ান রেক্টর পদে নিয়োগ করেছেন মেলিহ বুলুকে। তিনি এর্দোয়ানের দলের হয়ে ২০১৫ সালের নির্বাচনে লড়েছিলেন। ঘটনা হলো, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেক্টর পদে কাকে নিয়োগ করবেন, সেটা ঠিক করার ক্ষমতা এর্দোয়ানের আছে।

Türkei I Proteste an Bogazici Universität in Istanbul

ইস্তানবুলে ছাত্র-পুলিশ সংঘর্ষ।

কিন্তু ছাত্রছাত্রীদের দাবি, বুলু হলেন ক্ষমতাসীন দলের নেতা। তাঁর মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষমতা খর্ব করতে চাইবেন এর্দোয়ান। তাই রেক্টর নিয়োগ করার ক্ষমতা বিশ্ববিদ্যালয়কে দিতে হবে। ছাত্রছাত্রীরা এর্দোয়ানের দলের বিরুদ্ধে স্লোগানও দেয়।

এর্দোয়ানের দলের তরফে বলা হয়েছে, রেক্টরের রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থাকা অপরাধ নয়। আর যাঁর নিয়োগ নিয়ে এই বিক্ষোভ, সেই বুলু জানিয়েছেন, তিনি বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বের অন্যতম সেরা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করবেন।

ছাত্রছাত্রীরা জানিয়েছে, বুধবার আবার তাঁরা বিক্ষোভ দেখাবেন।

জিএইচ/এসজি(ডিপিএ, এপি)

সংশ্লিষ্ট বিষয়