এবার ক্রিসমাস মার্কেটও বাতিল হবে? | বিশ্ব | DW | 22.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

এবার ক্রিসমাস মার্কেটও বাতিল হবে?

করোনার প্রকোপ যাতে না বাড়ে তার আগাম প্রস্তুতি নিচ্ছে জার্মানি৷ আরো স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র খোলা, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করার পাশাপাশি নতুন নিয়ম চালুর পরিকল্পনাও রয়েছে৷ বাতিল হয়েছে অক্টোবর ফেস্ট৷ বড়দিনের উৎসবের কী হবে?

জার্মানির আবহাওয়া এখন সুন্দর থাকায় সাধারণ মানুষ শীতকাল নিয়ে তেমন ভাবছেন না৷ তবে শীতে করোনা সংক্রমণ বাড়তে পারে এবং এ নিয়ে কী করা যায় সে বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন৷ গত চার সপ্তাহ ধরে সারাদেশে করোনার সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে৷ 

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় সেসব দেশ আবার নতুন করে লকডাউনের কথা বিবেচনা করছে৷ শীতকালে কিভাবে করোনা মোকাবেলা করা যায় তা নিয়ে জার্মান আইন প্রণেতারাও চিন্তাভাবনা করে এরই মধ্যে কিছু পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছেন৷ জার্মান স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্পান সোমবার শীতে করোনা সংক্রমণের হার নিয়ন্ত্রণে রাখতে দ্রুতগতিতে করোনা টেস্ট এবং জ্বর মাপার জন্য স্বাস্থ্যকেন্দ্র খোলার পরিকল্পনার কথা বলেন৷ অন্যান্য ক্লিনিকে রোগীর চাপ কমিয়ে আলাদাভাবে করোনা টেস্ট করা হলে  সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সুবিধা হবে বলে আশা করা হচ্ছে ৷ জার্মান দৈনিক রাইনিশে পোস্টকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি যেমন দাঁড়িয়েছে তাতে স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা চার সপ্তাহের মধ্যে খুব ভালোভাবে করোনা মোকাবেলা করতে সক্ষম৷

স্পান শীতের জন্য করোনা পরীক্ষার নতুন কৌশলগুলো নিয়ে অক্টোবরে মাসে জার্মানির ১৬টি রাজ্যের প্রধানদের সাথে আলোচনা করার কথা জানিয়েছেন৷ তিনি আরো বলেন, ‘‘এ বছরের শুরুতে করোনার বিরুদ্ধে আমাদের যেমন  প্রস্তুতি ছিল, এখন আমরা তার চেয়ে অনেক বেশি প্রস্তুত৷’’

করোনার বিস্তার রোধে জার্মানির বিশ্ব খ্যাত অক্টোবরফেস্ট বাতিল করা হয়েছে অনেক আগেই৷ জার্মানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ক্রিসমাস বা বড়দিন৷ এবং বড়দিনকে ঘিরে  হয়ে থাকে ক্রিসমাস বাজারসহ নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন৷

জার্মানির বাভারিয়ার মুখ্যমন্ত্রী স্যোয়ডার সোমবার বলেন, ক্রিসমাস বাজারে প্রবেশ ও বের হওয়ার পথ সুরক্ষিত করা এবং মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলে ক্রিসমাস মার্কেট করা যেতে পারে৷

এ বিষয়ে থুরিঙ্গেনের মুখ্যমন্ত্রী বোডো রামেলো বলেন, বড়দিনের বাজার আরো ছোট আকারে করা যেতে পারে৷

সারল্যান্ডের মূখ্যমন্ত্রী টোবিয়াস হান্সও এ বছর ক্রিসমাস বাজারের আয়োজন করার পক্ষে৷ তবে তিনি সেখানে অ্যালকোহল পান সীমিত করা উচিত বলে মনে করেন৷

অনেক সাংসদের আশঙ্কা, অতিরিক্ত মদ্য পানের পর সামাজিক দূরত্ব বা অন্যান্য করোনা বিধিনিষেধ মেনে চলা সম্ভব নয়৷

এলিয়ট ডগলাস/এনএস

গত ডিসেম্বরের ছবিঘরটি দেখুন...

বিজ্ঞাপন