‘এটা ঠিক নয়, স্টিভ স্মিথ দাগি আসামি নন’ | বিশ্ব | DW | 29.03.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

‘এটা ঠিক নয়, স্টিভ স্মিথ দাগি আসামি নন’

সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেন তাঁর ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে এই কথাটি লিখেছেন৷ পিটারসেনের ভিডিওটি ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়েছে৷

বল ট্যাম্পারিংয়ের অভিযোগে সদ্য নিষিদ্ধ হওয়া অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার স্টিভ স্মিথ দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে ফিরেছেন৷ তবে ভিডিওটি দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গ বিমানবন্দরের৷ এতে দেখা যাচ্ছে, হেঁটে যাওয়া স্মিথকে ঘিরে আছেন কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী৷ এর মধ্যে দু'জন তাঁকে প্রায় ঠেলতে ঠেলতে নিয়ে যাচ্ছেন৷ পিটারসেনের কাছে বিষয়টি ভালো ঠেকেনি৷ তাই ভিডিওটি ফেসবুকে শেয়ার করে লিখেছেন, ‘‘এটা ঠিক নয়, স্টিভ স্মিথ কোনো দাগি আসামি নন৷’’

অস্ট্রেলিয়ার প্রখ্যাত রেডিও ভাষ্যকার অ্যালান জোন্সেরও বিষয়টি পছন্দ হয়নি৷ তিনি মনে করছেন, বিমানবন্দরে স্মিথের সঙ্গে গণ হত্যাকারীর মতো আচরণ করা হয়েছে৷

থেও ডোরোপুলাস নামে অস্ট্রেলিয়ার আরেক ক্রিকেটার মনে করছেন, স্মিথের সঙ্গে মাদক পাচারকারীর মতো আচরণ করা হয়েছে৷

উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে কেপটাউনে অনুষ্ঠিত তৃতীয় টেস্টে বল ট্যাম্পারিংয়ের অভিযোগ উঠেছিল৷ টেলিভিশন ক্যামেরায় ঘটনাটি ধরা পড়েছিল৷ এতে দেখা গেছে, ফিল্ডার ক্যামেরন ব্যানক্রফট হলুদ রঙের কিছু একটা ট্রাউজারের ভেতরে ঢুকাচ্ছেন৷ পরে সেটি দিয়েই নাকি তিনি বল ঘষেছিলেন৷

স্মিথ এই অভিযোগ স্বীকার করেন৷ এজন্য ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা তাঁকে এক টেস্টের জন্য নিষিদ্ধ করে৷ তবে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড তাঁকে ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে৷ সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকেও এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷ আর ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে নয় মাসের জন্য৷

জেডএইচ/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন