এক বছরে আফগানিস্তানে যুদ্ধের বলি ১০ হাজার | বিশ্ব | DW | 16.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এক বছরে আফগানিস্তানে যুদ্ধের বলি ১০ হাজার

২০১৭ সালে আফগানিস্তানে যুদ্ধের বলি হয়েছেন ১০ হাজার মানুষ৷ এর একটা বড় অংশ শিশু এবং মহিলা৷ জাতিসংঘের সাম্প্রতিক রিপোর্টে এই ছবি উঠে এসেছে৷ 

ভয়াবহ তথ্য প্রকাশ পেলো জাতিসংঘের সাম্প্রতিকতম সমীক্ষায়৷ সেখানে বলা হয়েছে, গত এক বছরে আফগানিস্তানে যুদ্ধের কারণে নিহত হয়েছেন অন্তত ১০ হাজার মানুষ৷ আহতের সংখ্যা অগুণতি৷ ২০১৬ সালের চেয়ে যা অন্ততপক্ষে ৯ শতাংশ বেশি৷ যদিও একইসঙ্গে রিপোর্টে জানানো হয়েছে যে, নিহতদের অধিকাংশই তালিবান এবং আইএস জঙ্গিদের আক্রমণের শিকার৷

ভিডিও দেখুন 01:40
এখন লাইভ
01:40 মিনিট

ভীতসন্ত্রস্ত আফগানরা পাখির মাঝে শান্তি খুঁজছে

বারাক ওবামার সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, আফগানিস্তান থেকে আস্তে আস্তে সৈন্য সরিয়ে নেবে অ্যামেরিকা৷ আক্রমণ প্রতিআক্রমণও খানিক কমেছিল৷ কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় এসে জানিয়ে দেন, সৈন্য সরানোর তো প্রশ্নই নেই, বরং প্রয়োজনে সেদেশে আরো সৈন্য পাঠাবে অ্যামেরিকা৷ তালিবানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জারি থাকবে৷ প্রত্যু্ত্তর দেয় তালিবান এবং আইএস৷ আফগানিস্তানে একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটাতে শুরু করে তারা৷ এর জেরে নিহত হন অসংখ্য সাধারণ মানুষ৷ বিভিন্ন বিদেশি মানবতাবাদী সংস্থার দপ্তরেও হামলা চালানো হয়৷ মার্কিন সেনাও আক্রমণ জারি রাখে৷ নিয়মিত চলতে থাকে বিমানহামলা৷ আর এই সবকিছুর মধ্যে পড়ে প্রাণ হারান অসংখ্য সাধারণ মানুষ, যার একটা বড় অংশ মহিলা এবং শিশু৷

সমীক্ষা অনুযায়ী, শুধুমাত্র বিমান হামলাতেই নিহতের সংখ্যা গত বছরের চেয়ে ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে৷ নারী নিহতের সংখ্যা বেড়েছে গত বছরের চেয়ে ৫ শতাংশ৷ শুধুমাত্র ২০১৭ সালেই নিহত হয়েছে ৮৬১ জন শিশু৷ আহত অন্তত ২৩১৮ জন৷ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০১৬ সালে মৃত্যু উপত্যকা খানিক স্বস্তি পেয়েছিল৷ ২০১৭ আবার পুরনো দিন ফিরিয়ে এনেছে৷ এই নিয়ে ৪ বছর আফগানিস্তানে বাৎসরিক নিহতের সংখ্যা ১০ হাজার ছড়ালো৷ আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলির কাছে বিষয়টি রীতিমতো আশঙ্কার৷

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই মুহূর্তে ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে আছে আফগান নাগরিকেরা৷ যাঁরা দেশে থাকছেন, তাঁরা যুদ্ধের বলি হচ্ছেন৷ আর যাঁরা ভিন দেশে পালিয়ে যাচ্ছেন শরণার্থী হয়ে, তাঁদেরও আর সে সমস্ত দেশ রাখতে চাইছে না৷ কিছুদিন আগে জার্মানি বেশ কিছু শরণার্থীকে দেশে ফিরিয়ে দেয়৷ পাকিস্তান আফগান নাগরিকদের দেশে ফিরে যাওয়ার শমন জারি করেছে৷ সব মিলিয়ে এক ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন সে দেশের সাধারণ মানুষ৷

এসজি/এসিবি (এপি, রয়টার্স)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন