এক ফেসবুক লাইভে রক্ষা পেল ১৫′শ শিক্ষার্থী | বিশ্ব | DW | 20.02.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভাইরাল ভিডিও

এক ফেসবুক লাইভে রক্ষা পেল ১৫'শ শিক্ষার্থী

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘স্টোরি টেলিং' এর প্রভাব রয়েছে বিশ্বের অনেক দেশেই৷ সামাজিক মাধ্যমে কোনো বিষয়ে ভিডিও ভাইরাল হলে প্রায় সময়ই সরকারের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়৷

দেয়া এমনই এক ভিডিওতে দেখা গেছে ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন নামে এক ব্যক্তি ঢাকার গুলিস্তানে রাস্তার পাশে থাকা আবর্জনার বিষয়ে কথা বলছেন৷ গুলিস্তানের সৈয়দ নজরুল ইসলাম স্মরণীর সামনে রয়েছে সুরিটোলা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ৷

ভিডিওতে দেখা গেছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির সামনেই সিটি কর্পোরেশনের একটি ভাগাড়৷ দেখেই বোঝা যায় এ জায়গাটিতে নিত্যদিনের আবর্জনা ফেলা হয়৷ সায়েদুল হক সুমন নামের ঐ ব্যক্তি, যিনি আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের প্রসিকিউটর বলে ফেসবুকে নিজের পরিচয় উল্লেখ করেছেন, তিনি ভাগাড়ের উপর দাঁড়িয়ে একটি বিদ্যালয়ের সামনে এ ধরণের ভাগাড় থাকার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন৷ স্কুলটিতে প্রায় ১৫'শ শিক্ষার্থী পড়াশোনা করেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোনো স্কুলের সামনে এ ধরণের ভাগাড় থাকতে পারে না৷ এ সময় তিনি সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ ও শিক্ষামন্ত্রীর কাছে ভাগাড়টি সরিয়ে নিয়ে ছেলে-মেয়েদের ‘মুক্তি' দেয়ার আহ্বান জানান৷

গত রবিবার ফেসবুকে দেয়া এ ভিডিওটি ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়েছে৷ এখন পর্যন্ত ভিডিওটি ২৮ লাখের বেশিবার দেখা হয়েছে৷ শেয়ার হয়েছে প্রায় ৫৪ হাজার বার৷ ঘটনার একদিন পর সোমবার তিনি আরেক ভিডিও বার্তায় কর্তৃপক্ষ ময়লার ভাগাড়টি সরিয়ে নিয়েছে বলে জানান৷ এ সময় তিনি ভাগাড়টি সরিয়ে নেয়ার কারণ হিসেবে তাঁর ভিডিও বার্তার বিষয়টি উল্লেখ করেন৷

আরআর/জেডএইচ 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন