1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান

একের পর এক রেকর্ড যশস্বী জয়সওয়ালের

১০ মার্চ ২০২৪

ই্ংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পঞ্চম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৫৭ রান করেছেন যশস্বী। সেই সঙ্গে তিনি করে ফেলেছেন একাধিক রেকর্ড।

https://p.dw.com/p/4dIIL
রাজকোটে তৃতীয় টেস্টে দুইশ রান করার পর যশস্বীর উচ্ছ্বাস।
ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট ,সিরিজে একের পর এক রেকর্ড করলেন যশস্বী জয়সওয়াল।ছবি: Gareth Copley/Getty Images

যশস্বীর বয়স ২২ বছর ৭০ দিন। এত কম বয়সে তিনি টেস্ট ক্রিকেটে এক হাজার রান করলেন। মাত্র ১৬ টেস্ট খেলে তিনি হাজার রান করলেন। এটা ভারতীয় ক্রিকেটারদের ক্ষেত্রে একটা রেকর্ড। গাভাস্কার, চেতেশ্বর পূজারা, মায়াঙ্ক আগরওয়ালদের থেকে দ্রুত তিনি হাজার রানের রেকর্ড করলেন। গাভাস্কারও এই তরুণ ক্রিকেটরকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে এই সিরিজে অসাধারণ ফর্মে আছেন তিনি। মাত্র নয় ইনিংসে ২৬টি ছয় মেরেছেন যশস্বী। শচিন ২৫টি ছয় মেরেছিলেন। তবে সেটা অনেক বেশি ইনিংস খেলে। এই সিরিজে ইংল্যান্ডের স্পিনারদের বল বারবার বাউন্ডারি সীমানার বাইরে উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।

ভারতীয় ক্রিকেটে যশস্বীর থেকে কম বয়সে হাজার রান করেছেন তিন ক্রিকেটার। শচিন, কপিল দেব ও রবি শাস্ত্রী। এরপরই যশস্বী। ফলে তার এই রেকর্ডও উড়িয়ে দেয়ার মতো নয়।

বৃহস্পতিবার যশস্বী যখন ইংল্যান্ডের স্পিনার শোয়েব বসিরকে ফ্লিক করে চার মেরে ৪৬ রানে পৌঁছে গেলেন, তখন তিনি আরেকটি রেকর্ড করলেন। একটি টেস্ট সিরিজে সাতশোর বেশি রান করার রেকর্ড। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে এক সিরিজে গাভাস্কার দুইবার সাতশ রান করেছিলেন। একবার ৭৭৪ ও অন্যবার ৭৩২ রান। যশস্বী এখনো পর্যন্ত করেছেন ৭১২ রান। তিনি যখন সাতশ রান পার করলেন, তখন কমেন্ট্রি বক্সে গাভাস্কার উপস্থিত।

গাভাস্কার বলেছেন, ''যশস্বী দ্রুত শিখছেন। তিনি এটা নিশ্চিত করছেন যে, সুযোগ পেলে তিনি শতরান করতে চান। ভারতের তার মতো একজন ক্রিকেটার দরকার। এমন ক্রিকেটার যিনি শতরান করবেন এবং তারপর উইকেট ছুঁড়ে দিয়ে আসবেন না। '' গাভাস্কার বলেছেন, ''টি২০ আসার পর ক্রিকেটারদের অপ্রাশিত শট মারতে হয়। তাদের মানসিকতায় পরিবর্তন এসেছে। এই সময় টেস্ট খেলার মানসিকতা বজায় রাখাটা খুবই জরুরি।''

সাবেক ইংল্যান্ড অধিনায়ক নাসির হুসেন ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের বলেছেন,  ''জয়সওয়াল আপনাদের কাছে খেলা শেখেনি। নিজের জীবনের থেকে শিখেছে। ওর দিকে তাকান। ওর কাছ থেকে শিখুন। আর একটু আত্মানুসন্ধান করুন।''

তবে এই বছরের শেষে যশস্বীর জন্য আরো পরীক্ষা অপেক্ষা করে আছে। ভারত অস্ট্রেলিয়াতে গিয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ খেলবে। অস্ট্রেলিয়ার দ্রুতগতির পিচে পেসারদের মোকাবিলা করতে হবে তাকে। দুই মাস আগে সাউথ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজে চার ইনিংসে ৫০ রান করেছিলেন যশস্বী। দেশের পর এবার বিদেশের পিচে সফল হতে হবে তাকে।

জিএইচ/এসজি(এএনআই, পিটিআই)