1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
ফাইল ছবিছবি: Getty Images/AFP/A. Ali

একবেলার অনুশীলনে পিন্ডি কতদূর?

৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

অদ্ভূত এক সফরে তার চেয়েও অদ্ভূত টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তান পৌঁছেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল৷ শুক্রবার রাওয়ালপিন্ডিতে শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্ট৷ এরপর জিম্বাবুয়ের সঙ্গে সিরিজ খেলতে দেশে ফিরে আসবে টাইগাররা৷

https://p.dw.com/p/3XIpq

এরপর ৩ এপ্রিল একটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলার পর ৫ এপ্রিল করাচিতে শুরু হবে টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ৷

কিন্তু ফিকশ্চার যতোই অদ্ভূত হোক, নিরাপত্তা নিয়ে নানা টানাপড়েনের পর অবশেষে পাকিস্তানে পূর্ণাঙ্গ সফরে আসায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল পাচ্ছে ব্যাপক আতিথেয়তা৷ বাংলাদেশের পূর্ণাঙ্গ সফরের মাধ্যমে প্রায় এক দশক পর নিজেদের মাঠে ধারাবাহিক ক্রিকেট আবার চালুর আশা করছে পাকিস্তান৷ ২০০৩ সালের পর রাওয়ালপিন্ডিতেই হতে যাচ্ছে দেশটির মাঠে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট৷

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে পিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নিরাপত্তাব্যবস্থার খুঁটিনাটি দেখা হয়েছে৷ বুধবার বাংলাদেশের ক্রিকেট দল পাকিস্তান আসার একদিন আগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর হুসাইন ইমামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি দল স্টেডিয়ামে যান৷ 

ডন সহ পাকিস্তানের বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার ইসলামাবাদে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সম্মানে অভ্যর্থনার আয়োজন করেছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভি৷ এ আয়োজনে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সদস্যদেরও৷ দুই দলের সদস্যরা ছাড়াও একাধিক মন্ত্রী এবং শীর্ষ পর্যায়ের রাজনৈতিক নেতাদেরও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এ আয়োজনে৷

পাকিস্তান ক্রিকেট দল এরই মধ্যে অনুশীলন শুরু করেছে৷ তবে বাংলাদেশ রাওয়ালপিন্ডি টেস্টের আগে কেবল বৃহস্পতিবারই অনুশীলনের সুযোগ পাচ্ছে৷ দেশ ছাড়ার আগে এ নিয়ে কথাও বলেছেন বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো৷ ডোমিঙ্গো বলোন, ‘‘এটা আসলে আদর্শ পরিস্থিতি নয়৷ কোনো টেস্ট শুরুর আগে আমরা সাধারণত ৭-৮ দিন আগে সেখানে যেতে চাই৷’’ 

কিন্তু মাত্র এক বেলার অনুশীলনে টাইগাররা কি পারবেন রাওয়ালপিন্ডির সঙ্গে মানিয়ে নিতে? ডোমিঙ্গো কথা বলেছেন এ নিয়েও, বলেছেন, ‘‘দেশের যেসব পিচে তারা (বাংলাদেশ) খেলে, সেগুলোতে তেমন গতি ও বাউন্স নেই৷ কিন্তু আমি নিশ্চিত, রাওয়ালপিন্ডিতে গতি ও বাউন্স থাকবে৷ ছেলেদের জন্য এটা একটা বিশাল চ্যালেঞ্জ হবে৷’’

পাকিস্তানে এখন পর্যন্ত চারটি টেস্ট খেলে সবকটিই হেরেছে বাংলাদেশ৷ তবে ২০০৩ সালের সফরের শেষ টেস্টে জয়ের ব্যাপক সম্ভাবনাও জেগেছিল৷ তবে অসাধারণ এক ইনিংস খেলে ইনজামাম-উল-হক একাই বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট জয়ের স্বপ্ন ধূলিস্যাৎ করে দেন৷

অন্য দলগুলোর সঙ্গেও বাংলাদেশের সাম্প্রতিক টেস্ট পারফর্ম্যান্স ভালো নয়৷ ২০১৯ সালে খেলা পাঁচ টেস্টের সবগুলোই হেরেছে টাইগাররা৷ গত নভেম্বরে  ভারতের বিরুদ্ধে শেষ দুটি টেস্ট তো হারতে হয়েছে ইনিংস ব্যবধানে৷ তবে ডোমিঙ্গো কোচ এবং টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক রাওয়ালপিন্ডিতে ভালো কিছুরই আশা করছেন৷ ডোমিঙ্গো বলছেন, ‘‘ভারতের বিরুদ্ধে বাজে পারফর্ম্যান্সের মধ্যেও আমাদের কয়েকজন ছেলে ভালো ব্যাট করেছে৷ কন্ডিশন ভালো না থাকলেও ব্যাটে ভালো কিছু করে দেখাতে হবে আমাদের৷’’

এডিকে/কেএম (ডন, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়
স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

আদানির কয়লার দামে ‘সংশোধন’ চায় পিডিবি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ
প্রথম পাতায় যান