একই ছাদের নীচে একাধিক প্রজন্মের সহাবস্থান | অন্বেষণ | DW | 25.06.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

একই ছাদের নীচে একাধিক প্রজন্মের সহাবস্থান

ইউরোপে অনেক শহরেই ছাত্রছাত্রীদের নিজের সামর্থ্যের মধ্যে উপযুক্ত বাসস্থান খোঁজা বড় সমস্যা৷ নেদারল্যান্ডসে এক অভিনব প্রকল্পের মাধ্যমে তার সমাধানের পাশাপাশি তরুণ ও বয়স্কদের মধ্যে মেলবন্ধনও সম্ভব হচ্ছে৷

আইসেল নদীর তীরে নেদারল্যান্ডসের ডেভেন্টার শহরে লাখখানেক মানুষের বসবাস৷ প্রায় এক চতুর্থাংশই ছাত্রছাত্রী৷ ইয়োলিকে ফান ডের ভাল্স তাঁদেরই একজন৷ এখানে থাকার খরচ বেশি হলেও তিনি একটি উপযুক্ত বাসস্থান পেয়েছেন এবং সেখানে গিয়ে উঠছেন৷ তিনি পরীক্ষামূলক এই প্রকল্পের অংশ হতে পেরে বেশ রোমাঞ্চ বোধ করছেন৷

তাঁর বাসস্থানে বাকি বাসিন্দাদের বয়স ৭০ থেকে ১০৪! অবসরপ্রাপ্তদের এই বসতিতে ১৬০ জন বৃদ্ধ-বদ্ধা থাকেন৷ ছ'তলা বাড়িটির প্রত্যেক তলায় একজন করে ছাত্রছাত্রীও থাকেন৷ ইয়োলিকে বলেন, ‘‘প্রথমে আইডিয়াটি অত্যন্ত পাগলাটে মনে হয়েছিল৷ সব প্রতিবেশীই বয়স্ক মানুষ৷ কিন্তু আসলে মেলামেশা ভালোই হতে পারে৷''

ভাড়ার বদলে বয়স্ক প্রতিবেশীদের দেখাশোনার জন্য তাঁকে মাসে ৩০ ঘণ্টা সময় ব্যয় করতে হয়৷ ভালো করে সংসার পাতার সময় নেই৷

প্রথমেই ডিনার টেবিল সাজানোর দায়িত্ব কাঁধে এলো৷ ইয়োলিকে হাতেনাতে কিছু প্রাথমিক শিক্ষাও পেলেন৷ যেমন বৃদ্ধবৃদ্ধারা বলছেন, নিজেরাই সব করতে পারেন৷

এখানে সঠিক আচরণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ এখানকার আদবকায়দার সঙ্গে মানিয়ে নিতে কিছু সময় লাগতে পারে৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত এখানে থাকতে ভালোই লাগবে বলে ইয়োলিকে মনে করেন৷ তিনি এর মধ্যে ইয়োকে কেয়ারডিক-এর বন্ধু হয়ে উঠেছেন৷ ইয়োকের সামান্য স্মৃতিভ্রংশ ঘটেছে৷ তিনি ইয়োলিকে-র কাছে বিগত দিন ও তাঁর মৃত স্বামীর গল্প বলতে ভালবাসেন৷ ইয়োলিকে মনে করেন, এর মাধ্যমে বয়স্কদের সম্পর্কে একেবারে ভিন্ন ধারণা পাওয়া যায়, তাঁদের কাছে শেখা যায়, যা এক অসাধারণ অভিজ্ঞতা৷

তরুণ ও বয়স্কদের মধ্যে মেলবন্ধন আসলে কিন্তু মোটেই কঠিন নয়৷

নরবার্ট ল্যুবার্স/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন