‘এই মন্ত্রী, মানুষ নামের হায়েনা′ | পাঠক ভাবনা | DW | 31.07.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পাঠক ভাবনা

‘এই মন্ত্রী, মানুষ নামের হায়েনা'

‘ভারতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩৩ জন মারা গেলেও কথা হয় না, বাংলাদেশে দু'জন মারা যাওয়া নিয়ে এত কথা কেন?' বক্তব্যটি নৌ-পরিবহণ মন্ত্রী শাহজাহান খানের৷এর প্রেক্ষিতে ডয়চে ভেলের অসংখ্য পাঠক মন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছেন, দিয়েছেন ধিক্কার৷

সড়ক দুর্ঘনায় দু'জন ছাত্রের মৃত্যুর খবরে দেশের একজন মন্ত্রীর এমন বক্তব্যে পাঠক গোলাম ফারুক লিখেছেন, ‘‘এ তো ভয়ংকর, নিষ্ঠুর একজন ভিলেনের প্রতিচ্ছবি৷ কি লজ্জা! অবশ্য মন্ত্রীর কোনো লজ্জা আছে বলে মনে হয় না৷''

‘‘তবে দায়বদ্ধতা ও জনসম্পৃক্ততা ‘না' থাকলে এমন বেফাঁস মন্তব্য যে কেউ করতে পারে৷ দেশ এবং দেশের মানুষের প্রতি এদের কোনো দায়বদ্ধতা নেই৷ এমন অথর্ব লোক আমাদের দেশে মন্ত্রীত্ব করে, যা ভাবতেই কষ্ট হয়৷ আজব দেশ...!'' বাংলাদেশের নৌ-পরিবহণ মন্ত্রী সম্পর্কে এই মন্তব্যটি করেছেন ডয়চে ভেলের পাঠক রহুল আমীন সজীব৷

সালেক মোহাম্মদ লিখেছেন, এই রোড অ্যাক্সিডেন্টের পুরো দায় সরকারের ওপরেই বর্তায়৷ তবে সালেক মোহাম্মদের কথায়, ‘‘এদের বিচারের সম্মুখীন করাটা খুবই জরুরি৷ এরা দেশের ‘রোড কালচার' চিরতরে ধ্বংস করে ফেলেছে৷ শুধু ইন্ডিয়ার কারণেই এরা ক্ষমতায় আছে, অথচ বিএনপি এটাকে ইস্যু করে একটা কথাও বলেনি৷ ‘শেম টু বিএনপি'৷''

অন্যদিকে পাঠক নজরুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘স্বাধীন দেশে ন্যায় দাবি করতে গেলে রাজাকারের বাচ্চা উপাধি পেতে হয়, অন্যায়ের প্রতিবাদ করলে জামাত-শিবির হতে হয় ৷আর এখানে মন্তব্য করলে কী উপাধি পেতে হয় তার ভয়েই থাকতে হবে৷''

পাঠক শাহ নেওয়াজ দুঃখ করে লিখছেন, বাংলাদেশে সাধারণ জনগণের মতামতের কোনো মূল্যই নেই৷

পাঠক মহিউদ্দিন শিবলিরও নূর হোসেনের সাথে একমত৷ শিবলির ধারণা, যতদিন এ ধরনের কুলাঙ্গার মন্ত্রী ও রাজনীতিবিদ এ দেশে থাকবে, ততদিন এ ধরনের দুর্ঘটনা, দূর্নীতি, অনিয়ম, লুটপাট, চুরি চলতেই থাকবে৷

নূর হোসেন লিখেছেন, ‘‘একজন স্বশিক্ষিত ব্যক্তির থেকে ভালো কিছু আশা করা যায়৷ কিন্তু আমরা তো স্বশিক্ষিত জাতি হতে পারিনি৷ আমরা সার্টিফিকেটধারী শিক্ষিত৷ আমাদের জ্ঞানের পরিধি অনুযায়ী আমরা কথা বলি, কাজ করি৷ সুতরাং এতে মূল্যায়ন করার মতো সুযোগ নেই৷''

‘আমরা অত্যান্ত লজ্জিত যে ওনার মতো এমন একজন ব্যক্তি বাংলাদেশের মন্ত্রী!ভারতে ৩৩ জন মারা গেলেও কোনো কথা হয় না৷ আর এখানে দু'জন মারা যাওয়াতে এত কথা হচ্ছে....এই কথার মাধ্যমে উনি আসলে কী বোঝাতে চাইছেন? তাছাড়া এই দু'টো ঘটনার মাঝে তুলনা করার কোনো কারণও আমি দেখছি না৷ ভারতের জনগণ যদি ৩৩ জনের মৃত্যু নিয়ে কোনো কথা না বলে তাতে আমাদের কী? তাই ওনার এই কথাকে হাজার বার ছি: দিলাম!!'' – এমনটাই মনে করেন পাঠক মিজানুর রহমান শাহীন৷

‘‘ভারতে যা হয় হোক, আমাদের দেশে এমনটা চলবে না৷ আপনাদের জবাবদিহি করতে হবে....কারণ মন্ত্রী মহোদয়, আপনি আমাদের সেবক, বস নন৷ নিজ ইচ্ছায় পদত্যাগ করুন, তা না হলে জনগণ টেনে নিয়ে আপনাকে নামাবে৷'' এই সতর্ক বাণী  পাঠক এআর রহমানের৷

‘‘মন্ত্রীর পদত্যাগ নয়, তাকে বরখাস্ত করা হোক'' – এভাবেই জোর দাবি জানিয়েছেন বন্ধু সুজন গুপ্ত৷

‘‘মন্ত্রী এই কথা বলেন কীভাবে?' – আনন্দ চন্দ্র দাসের প্রশ্ন৷

‘‘এই মন্ত্রী মানুষ নামের হায়েনা'', মনে করেন আবদুল্লাহ আল নোমান পলাশ৷

‘‘আমার কথা হচ্ছে ভারতের সাথে কেন আমরা আমাদের তুলনা করব?'' প্রশ্ন করেছেন ডয়চে ভেলের পাঠক তানভির৷

‘‘অমানুষ না হলে এই কথা বলতে পারত না৷ দুঃখিত এরাই আমাদের মন্ত্রী'' – মন্তব্য ওবায়দুল্লাহ মিজানের৷

সংকলন: নুরুননাহারসাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন