‘এই আগ্রাসন আমার মোটেই পছন্দ নয়′ | বিশ্ব | DW | 28.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

‘এই আগ্রাসন আমার মোটেই পছন্দ নয়'

ইউক্রেনের জাহাজ আটক করে আরো নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়তে পারে রাশিয়া৷ এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প রুশ প্রেসিডেন্ট পুটিনের সঙ্গে বৈঠক বাতিলের ইঙ্গিত দিয়েছেন৷

২০১৪ সালে ক্রাইমিয়া উপদ্বীপ বেদখল ও ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে রুশপন্থি বিদ্রোহীদের মদতের কারণে রাশিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়েছিল৷ এবার নাবিকসহ ইউক্রেনের ৩টি জাহাজ দখল করায় আরো নিষেধাজ্ঞার পক্ষে সওয়াল করছেন ইউরোপের অনেক নেতা৷ ইইউ-র বর্তমান সভাপতি দেশ অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী কারিন ক্নেইসি বলেন, গোটা ঘটনা সম্পর্কে আরো তথ্য ও দুই পক্ষের আচরণ বিশ্লেষণ করে ইউরোপীয় ইউনিয়ন রাশিয়ার উপর আরো নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি বিবেচনা করতে পারে৷ পোল্যান্ড ও অস্ট্রিয়া রাশিয়ার উপর আরো নিষেধাজ্ঞা চাপানোর পক্ষে সওয়াল করেছে৷ জার্মানিতেও এমন সম্ভাবনার কথা শোনা যাচ্ছে৷ আগামী ১০ই ডিসেম্বর ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন৷

গত সপ্তাহান্তেইউক্রেনের তিনটি জাহাজ আটক করে আর্থিক বাজারে আরো চাপের মুখে পড়েছে রাশিয়া৷ রুবেলের বিনিময় মূল্যও কিছুটা পড়ে গেছে৷ এই অবস্থায় নতুন নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার অর্থনীতির উপর আরো চাপ সৃষ্টি করতে বাধ্য৷ বার্লিনে রাশিয়ার উপ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলেক্সান্ডার গ্রুশকো বলেন, তাঁর দেশের উপর আরো নিষেধাজ্ঞা চাপালে কোনো সমস্যার সমাধান হবে না৷ তাঁর মতে, ইউক্রেনই দেশের পূর্বাঞ্চলে মিনস্ক চুক্তি বানচাল করতে প্ররোচনা সৃষ্টি করেছে৷ রাশিয়ার গুপ্তচর সংস্থা এফএসবি তার প্রমাণ হিসেবে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে৷

ইউক্রেন রাশিয়ার হামলার আশঙ্কায় সীমান্ত ও কৃষ্ণ সাগর সংলগ্ন এলাকায় ৩০ দিনের জন্য সামরিক শাসন জারি করায় রাশিয়াও তৎপরতা বাড়াচ্ছে৷ আটক ২৪ জন ইউক্রেনীয় নাবিকের মধ্যে কয়েকজনকে রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে স্বীকারোক্তি করতে দেখা গেছে৷ সেখানে পরিকল্পিত প্ররোচনার কথা স্বীকার করেছেন তাঁরা৷ ক্রাইমিয়ার এক আদালত ৭ জন নাবিককে ২ মাসের জন্য আটক রাখার নির্দেশ দিয়েছে৷

বর্তমান এই সংকট কাটাতে ইউরোপীয় ইউনিয়নকে আরো সক্রিয় হয়ে ওঠার ডাক দিয়েছে অ্যামেরিকা৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, আর্জেন্টিনায় আসন্ন জি-টোয়েন্টি শীর্ষ সম্মেলনে তিনি সম্ভবত রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিনের সঙ্গে পরিকল্পিত বৈঠক বাতিল করবেন৷ ওয়াশিংটন পোস্ট সংবাদপত্রকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেন, ইউক্রেনের বিরুদ্ধে এই আগ্রাসন তাঁর একেবারেই পছন্দ নয়৷

রাশিয়ার এই আচরণের প্রেক্ষাপটে ইউরোপে রাশিয়ার গ্যাস সরবরাহের পাইপলাইন প্রকল্প ‘নর্ড স্ট্রিম ২' চাপের মুখে পড়েছে৷ বিশেষ করে এই প্রকল্পের মদতদাতা হিসেবে জার্মানির মতো দেশ বিপাকে পড়েছে৷ পোল্যান্ডে পূর্ব ইউরোপের কিছু দেশ পশ্চিমা বিশ্বকে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হবার ডাক দিচ্ছে৷ তাঁদের মতে, প্রয়োজনে এই পাইপলাইন প্রকল্পও বলি দিতে হবে৷ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হেদার নাউয়ার্ট-ও ‘নর্ড স্ট্রিম ২' প্রকল্পের সমালোচনা করেন৷ তাঁর মতে, রাশিয়ার সরকারের লাভ হয়, এমন কোনো প্রকল্পের মদতের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা উচিত৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন