ঋণের টাকা শোধ করতে না পারলে স্ত্রী বিক্রি | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 27.10.2009
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সমাজ সংস্কৃতি

ঋণের টাকা শোধ করতে না পারলে স্ত্রী বিক্রি

কৃষি কাজ এখন আর আগের মতো নেই৷ অনাবৃষ্টি আর খরার কারণে তা হয়ে উঠেছে ভাগ্যের ব্যাপার৷ অথচ বাঁচাতে হবে পরিবার, বাঁচতে হবে নিজেকে৷ আর তাই ভারতের প্রত্যন্ত বুন্ডেলখান্ড অঞ্চলের কৃষকদের ভরসা এখন পয়সাওয়ালা-রা৷

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ভারতের উত্তর প্রদেশ এবং মধ্য প্রদেশের সঙ্গে লাগোয়া বুন্ডেলখান্ডের পয়সাওয়ালা-রা গরীব কৃষকদের ঋণ দেয়ার ব্যাপারে বেশ উদার৷ তবে সেই ঋণের সুদ অবশ্য বেশ কড়া৷ শুধু তাই নয়, সময়মতো ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে না পারলে কৃষকদের সইতে হয় নানা বিড়ম্বনা৷ অনেক কৃষক সেক্ষেত্রে নিজেকেই সারা জীবনের শ্রমিক হিসেবে সপে দেয় পয়সাওয়ালার কাছে৷ কেউ কেউ আবার তাদের কাছে ঋণের টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেয় স্ত্রীকে৷

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এমনই এক ভুক্তভোগী মহিলা জানালেন, এক পয়সাওয়ালা তাকে তার স্বামীর কাছ থেকে কিনে নেয়৷ এবং মাসখানেক জোর করে তার সঙ্গে বসবাসে বাধ্য করে৷ অবশ্য পুলিশ বিষয়টি টের পাওয়ার পর সে মহিলাকে তার স্বামী ফিরিয়ে নেয়৷

ভারতের সেন্টার ফর সোশ্যাল রিসার্চ এর রঞ্জনা কুমারী জানান, সংশ্লিষ্ট এলাকায় স্বার্থ উদ্ধারের জন্য নারীদের ব্যবহারের মাত্রা বেশী৷ এমনকি সেখানকার মহিলারা থানায় অভিযোগ দায়ের করলেও খুব কম সাহায্য পান৷

অবশ্য ঋণের টাকা শোধ করার পরও পয়সাওয়ালাদের কাছে স্ত্রী হারাচ্ছেন অনেক কৃষক৷ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এরকম এক কৃষক জানালেন, পানি উত্তোলনের ইঞ্জিন এবং জমি বিক্রি করে ঋণ শোধ করার পরও ঋণদাতা পয়সাওয়ালা প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে তার স্ত্রীকে নিয়ে যান৷ এরপর তার স্ত্রী আর ফিরে আসতে পারেনি৷

ভারতের সমাজকর্মীদের দাবি, বুন্ডেলখান্ড এর এই চিত্র দরিদ্রতার মাঝে মহিলাদের অসহায় অবস্থাই ফুটিয়ে তুলছে৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: আবদুস সাত্তার

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন