উলটোপথে ভিআইপিদের গাড়ি ‘হালাল′ করতে ভিআইপি লেন! | বিশ্ব | DW | 06.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

উলটোপথে ভিআইপিদের গাড়ি ‘হালাল' করতে ভিআইপি লেন!

ঢাকার সড়কে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বা ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করার প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছেন নগর পরিকল্পনাবিদ, পরিবহণ বিশেষজ্ঞ ও পরিবহণ মালিকরা৷ বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও বইছে সমালোচনার ঝড়৷

সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, ‘‘ঢাকায় একই সড়কে ভিআইপি ও অ্যাম্বুলেন্সসহ পুলিশের জরুরি সেবা দিতে সংশ্লিষ্ট সংস্থার গাড়ি চলাচলে রাজধানীতে আলাদা লেন করার সম্ভাব্যতা যাচাই-বাছাইয়ের প্রস্তাব দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ৷ সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রণালয়কে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সম্প্রতি এ প্রস্তাব দেয়৷''

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘‘বিশেষ করে ইমার্জেন্সি সার্ভিসের জন্য আলাদা লেন দরকার৷ ভিআইপিরা এত গুরুত্বপূর্ণ নন৷ অ্যাম্বুলেন্সে যে লোকটা মারা যাচ্ছেন, তাঁর জন্য ইমার্জেন্সি সার্ভিস দরকার৷ এছাড়া ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের অনেক সময় ইমার্জেন্সি সার্ভিস দরকার হয়৷''

মন্ত্রিসভা সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগকে ভিআইপিদের জন্য আলাদা একটা লেন করার জন্য কোনো নির্দেশনা দিয়েছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘‘মন্ত্রিসভা এটা বলেনি৷ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে একটা ‘নর্মাল' অনুরোধ করা হয়েছে, বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখার জন্য৷''

তিনি আরো বলেন, ‘‘পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন আছে, আমাদের দেশেও সেটা করা যায় কিনা, সেটা পরীক্ষা করে দেখার অনুরোধ করা হয়েছে মাত্র৷ ভিআইপিরা প্রায় সময় ডান দিক দিয়ে যান, উলটো দিক দিয়ে যান৷ এতে নানা ধরনের অসুবিধা হয়৷ ভিআইপিদের অনেক সময় (উলটো পথে) যাওয়ার প্রয়োজন হয়৷''

নগর পরিকল্পনাবিদ মোবাশ্বের হোসেন সরকারের এই ভিআইপি লেনের চিন্তা-ভাবনার ব্যাপারে ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘ফ্লাইওভার বানিয়ে যেমন সড়কের নীচের ৮০ শতাংশ রাস্তা কমিয়ে ফেলা হয়েছে, তেমনি এই সিদ্ধান্ত আরো নতুন সংকট তৈরি করবে৷ রাস্তার ধারণক্ষমতা না বাড়িয়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত সড়ক ব্যবস্থাপনায় আরও বিশৃঙ্খলা তৈরি করবে৷ কারণ ঢাকা শহরে যে রাস্তা আছে, সেখান থেকেই আরেকটি নতুন ভিআইপি লেন তৈরি করা হবে৷ শতকরা ৮০ ভাগ মানুষ গণপরিবহণে যাতায়ত করেন৷ তাঁদের রাস্তার বড় একটি অংশ কেড়ে নিয়ে খুবই খুদ্র একটি অংশকে সুবিধা দিতে এই প্রস্তাব দেয়া হয়েছে৷''

তিনি বলেন, ‘‘ভিআইপিদের পথ ‘হালাল' করতে অ্যাম্বুলেন্সসহ জরুরি সেবার কথা বলা হচ্ছে৷ অ্যাম্বুলেন্স বা পুলিশের জরুরি গাড়ি উলটো পথে চলতে বাধা নাই৷ ঢাকা শহরে যে যানজট তাতে ভিআইপিরা যদি ভিআইপি লেনে চলাচল করেন, তাহলে তাঁরা জনরোষের মুখে পড়ে গণপিটুনির শিকার হতে পারেন৷ তাছাড়া ভিআইপি লেন ন্যায়-নীতি বিরোধীও৷''

অডিও শুনুন 05:10
এখন লাইভ
05:10 মিনিট

‘এই সিদ্ধান্ত আরো নতুন সংকট তৈরি করবে’

ঢাকায় সড়কের পরিমাণ মোট আয়তনের ৭ ভাগের বেশি নয়৷ কিন্তু একটি শহরে মোট আয়তনের কমপক্ষে ৩০ ভাগ সড়ক থাকা প্রয়োজন বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা৷ এর মানে হলো, প্রয়োজনের মাত্র এক তৃতীয়াংশ সড়ক আছে এই শহরে৷ ঢাকা শহরের মোট এলাকা ১৩৫৩ বর্গ কিলোমিটার আর বর্তমান রাস্তার আয়তন ২,২০০ কিলোমিটার, যার মধ্যে ২১০ কিলোমিটার প্রধান সড়ক৷ সুতরাং প্রয়োজনের তুলনায় সড়ক আছে এক তৃতীয়াংশ৷ বিপরীতে গত পাঁচ বছরে যানবাহন বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি৷

এমনিতেই ঢাকায় ১৫ ভাগ যাত্রী দখল করে আছেন মোট সড়কের ৭০ ভাগ৷ স্ট্র্যাটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্ল্যান বা এসটিপি-র হিসাব অনুযায়ী, বর্তমানে ঢাকায় কম-বেশি ১৫ ভাগ যাত্রী প্রাইভেট কারে যাতায়াত করেন৷ এই প্রাইভেট কারের দখলে থাকে ৭০ ভাগেরও বেশি রাস্তা৷ বাকি ৮৫ ভাগ যাত্রী অন্য কোনো ধরনের গণপরিবহণ ব্যবহার করেন৷ অর্থাৎ তারা গণপরিবহণ সড়কের মাত্র ৩০ ভাগ এলাকা ব্যবহারের সুযোগ পান৷ জনসংখ্যার হিসেবে শতকরা এক ভাগের মতো মানুষের প্রাইভেট কার আছে৷ কিন্তু সড়ক চলে গেছে তাদের দখলে৷

মোবাশ্বের হোসেন বলেন, ‘‘এই যখন অবস্থা, তখন ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করা মানে হচ্ছে ওই ৩০ ভাগ জায়গায়ও ভাগ বসানো৷ স্ট্র্যাটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্ল্যান বা এসটিপি বাস্তবায়ন করলে ঢাকায় যানজট কমবে৷ এতে গণপরিবহণ ব্যবস্থা উন্নত এবং সড়কের পরিকল্পিত ব্যবহারে কথা বলা আছে৷ ব্যক্তিগত যানবাহন কমানোর কথা আছে৷''

অডিও শুনুন 01:07
এখন লাইভ
01:07 মিনিট

‘ ভিআইপিদের জন্য নয়, গণপরিবহণের জন্য আলাদা লেন হতে পারে’

এছাড়া গণপরিবহণবিশেষজ্ঞ বুয়েটের অধ্যাপক ড. শামসুল হক সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘ঢাকার সড়কগুলোতে ছ'টি লেনের বেশি নেই৷ কোথাও কোথাও এক বা দুই লেনও রয়েছে৷ এর মধ্যে ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের (এমআরটি) জন্য একটি ও বাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের (বিআরটি) জন্য একটি, মোট দু'টি লেন চলে যাচ্ছে৷ এর সঙ্গে যদি ভিআইপি বা জরুরি সেবার নামে আরও একটি লেন চলে যায়, তাহলে তো আর সড়কই থাকছে না৷ একটি গণতান্ত্রিক জনবান্ধব হিসেবে পরিচিত সরকার এমন অ-জনবান্ধব সিদ্ধান্ত নিতে পারে না৷''

ঢাকা সড়ক পরিবহণ মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েতুল্লাহ ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘আলাদা লেন হতে পারে, তবে তা হতে হবে গণপরিবহণের জন্য৷ যেহেতু নগরীর ৮০ ভাগ মানুষ গণপরিবহণ ব্যবহার করেন, তাই শুধু গণপরিবহণের জন্য যদি আলাদা লেন করা হয় তাহলে যানজট কমবে৷ অধিকাংশ মানুষ উপকৃত হবেন৷ সেখানে ভিআইপিদের গাড়িও চলতে পারে৷ কিন্তু শুধু ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করলে, তাতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে৷''

এদিকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এই ভিআইপিদের জন্য আলাদা লেন করার বিষয়টি সমালোচনার মুখে পড়েছে৷ কেউ বলেছেন, ভিআইপিদের জন্য আলাদা শহর করতে৷ আবার কেউ বলেছেন তাঁদের জন্য আলাদা হেলিকপ্টার সার্ভিস চালু করতে৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন