উগ্র ডানপন্থিদের রুখে দিলো ১৫ বছরের বালক | বিশ্ব | DW | 08.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভাইরাল ভিডিও

উগ্র ডানপন্থিদের রুখে দিলো ১৫ বছরের বালক

ইটালিতে যাযাবর জাতি রোমাদের বিরুদ্ধে চলছে উগ্র ডানপন্থিদের আন্দোলন৷ তেমনই এক বিক্ষোভে রুখে দাঁড়ালেন ১৫ বছরের বালক সিমোনে৷ তাঁর কথার তোড়ে কথা হারালেন বিক্ষোভকারীরা৷

ঘটনার শুরু ২ এপ্রিল৷ রাজধানী রোমের পাশেই শহরতলী তোরে মাউরায় ৭০ জন রোমাকে আবাসন দেয়ার ঘোষণা দেয় স্থানীয় কর্তৃপক্ষ৷ এর পর থেকেই এর বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করে উগ্র ডানপন্থিরা৷

আন্দোলনের নেতৃত্বে রয়েছে কাসাপাউন্ড নামের রাজনৈতিক দল৷ এদিকে, রোমের স্থানীয় সরকার বা সিটি কাউন্সিলের নিয়ন্ত্রণও রয়েছে ফাইভ স্টার মুভমেন্ট (এমফাইভএস) নামের আরেকটি উগ্র ডানপন্থি দলের হাতে৷

২ এপ্রিলই রোমাদের জন্য নির্মিত আবাসন কেন্দ্রের বাইরে জড়ো হয় তিন শতাধিক বিক্ষোভকারী৷ রাস্তায় পার্ক করে রাখা বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে আগুনও ধরিয়ে দেয় তারা৷ এক পর্যায়ে তছনছ করা হয় রোমাদের জন্য পাঠানো খাবারও৷ এসময় ‘ওরা না খেয়ে মরে যাক' বলে শ্লোগান দিতেও দেখা যায় অনেককে৷

বিক্ষোভের মুখে দাবি মেনে নিয়ে বুধবার রোমাদের অন্য এলাকায় সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয় রোম৷

কিন্তু এর পরও থামেনি ডানপন্থিদের বিক্ষোভ৷ এ ঘটনাকে পুঁজি করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টায় কমতি নেই কাসাপাউন্ড দলের কর্মীদের৷

কিন্তু এমন এক বিক্ষোভ চলাকালে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় অপ্রত্যাশিত এক বাধার মুখোমুখি হতে হয় এক কাসাপাউন্ড নেতার৷ তিনি সাংবাদিকদের বলছিলেন, ‘স্থানীয় জনগণ রোমাদের এই এলাকায় দেখতে চায় না৷' ঠিক তখনই পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা ১৫ বছরের বালক সিমোনে এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান৷ সাংবাদিকরাও তাঁর বক্তব্য রেকর্ড করে নেন৷

সিমোনে স্পষ্ট ভাষায় বলেন, ‘‘আমি আপনার সঙ্গে একমত না৷''

তিনি বলেন, ‘‘আপনারা তোরে মাউরায় জনগণের ক্ষোভকে কাজে লাগাচ্ছেন৷ নিজেদের স্বার্থে কাজে লাগানোর জন্য আপনারা ক্ষোভকে ভোটে রূপান্তরের চেষ্টা করছেন৷''

সিমোনে আরো বলেন, ‘‘সবসময় কিছু হলেই সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে কথা বলার সঙ্গে আমি একমত নই৷ যখন আপনারা এই অঞ্চলে ইউরোপীয় বিনিয়োগের কথা বলেন, আমি বলি এই ফান্ড সবার জন্য ব্যবহার হোক৷ ইটালিয়ান, রোমা, আফ্রিকান, কাউকেই বঞ্চিত করা উচিত না৷''

তাঁর এই পালটা যুক্তির তোড়ে পুরোটা সময় অস্বস্তিকর মুখভঙ্গি করে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় কাসাপাউন্ড নেতাকে৷

সিমোনের এই সাহসী অবস্থান ও বক্তব্য সংবাদ আকারে প্রকাশ হয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও৷ তাঁর বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে অনলাইনে৷ উগ্র ডানপন্থিদের ‘ভুল বুঝিয়ে ফায়দা নেয়ার' চেষ্টাকে এভাবেই রুখে দেয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকে৷

ইউটিউবে দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকা পুরো ভিডিও প্রকাশ করেছে ৫ এপ্রিল৷ মাত্র তিন দিনেই আড়াই লাখেরও বেশি মানুষ দেখেছেন ভিডিওটি৷

এডিকে/জেডএইচ 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন