ইসলামিক স্টেটের বাংলাদেশ সামরিক প্রধানের মৃত্যু, নতুন হামলার হুমকি | বিশ্ব | DW | 05.10.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

ইসলামিক স্টেটের বাংলাদেশ সামরিক প্রধানের মৃত্যু, নতুন হামলার হুমকি

তথাকথিত জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর বাংলাদেশ সামরিক শাখার প্রধান তামিম চৌধুরীর একটি নিবন্ধ প্রকাশ করা হয়েছে গোষ্ঠীটির রুমিয়া ম্যাগাজিনে৷ এতে চৌধুরীর মৃত্যুর খবরের পাশাপাশি নতুন হামলার হুমকিও দেয়া হয়েছে৷

তথাকথিত জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর বাংলাদেশ সামরিক শাখার প্রধান তামিম চৌধুরীর একটি নিবন্ধ প্রকাশ করা হয়েছে গোষ্ঠীটির রুমিয়া ম্যাগাজিনে৷ এতে চৌধুরীর মৃত্যুর খবরের পাশাপাশি নতুন হামলার হুমকিও দেয়া হয়েছে৷

আইএসের বহুভাষিক ম্যাগাজিন রুমিয়ার দ্বিতীয় সংস্করণে বাংলাদেশ নিয়ে একটি ‘‘এক্সক্লুসিভ'' নিবন্ধ প্রকাশ করা হয়েছে৷ এটির লেখক তামিম চৌধুরী, যিনি গত আগস্টে বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জে পুলিশের গুলিতে নিহত হন৷ আইএসের ম্যাগাজিনে চৌধুরীকে ‘‘বাংলার সামরিক এবং গুপ্ত হামলার'' সাবেক প্রধান হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে৷

বিস্তারিত প্রতিবেদনে বাংলাদেশে ইসলামিক স্টেটের বিভিন্ন জঙ্গি হামলা নিয়ে একটি ইনফোগ্রাফিক প্রকাশ করা হয়েছে৷ এতে দেখা যাচ্ছে, দীর্ঘ দিন ধরেই দেশটিতে জঙ্গি গোষ্ঠীটির তৎপরতা রয়েছে৷ পাশাপাশি গুলশান হামলায় জড়িত পাঁচ জঙ্গির প্রশংসামূলক প্রোফাইলও প্রকাশ করেছে প্রোপাগান্ডা ম্যাগাজিনটি৷ 

সুইডেন প্রবাসী বাংলাদেশি সংবাদিক তাসনিম খলিল এই বিষয়ে বলেন, ‘‘বাংলাদেশে আইসিসের মূল টার্গেট কারা তার একটি হিসাব আছে নিবন্ধে: ১২% শিয়া, ১৯% ‘‘মুরতাদ ও নাস্তিক,'' ২৭% খ্রিষ্টান, ৪২% হিন্দু ও বৌদ্ধ৷ বাংলাদেশে আইসিসের মূল টার্গেট যে হিন্দু আর বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা সেটা আমি অনেক দিন ধরেই বলে আসছি৷ এবার আইসিসের হিসাবেই অংকটি পরিষ্কার হলো৷''

জঙ্গিদের অনলাইন তৎপরতার দিকে নজর রাখা সাইট ইন্টেল গ্রুপের প্রধান রিটা কাৎস রুমাইয়াতে প্রকাশিত বাংলাদেশ বিষয়ক প্রতিবেদনটি বিশ্লেষণ করেছেন৷ টুইটারে তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ক্যানাডিয়ান নাগরিক তামিম চৌধুরীকে বেঙ্গলের সামরিক শাখার সাবেক প্রধান হিসেবে পরিচয় দিয়েছে ইসলামিক স্টেট৷   

চৌধুরীর লেখা নিবন্ধকে উদ্বৃত করে রিটা কাৎস আরো লিখেছেন, ‘‘আইসিস নিরাপত্তা ফাঁকফোকর খুঁজে বের করবে এবং বিদেশি, পর্যটক, কূটনৈতিক, পোশাক ক্রেতা, ধর্মপ্রচারক এবং বিভিন্ন ক্রীড়াদলের উপর হামলা চালাবে৷''

তবে তাসনিম খলিল জানিয়েছেন, তামিম চৌধুরী যে জঙ্গি গোষ্ঠীটির বাংলাদেশ প্রধান নয় সেটাও ম্যাগাজিনটির নিবন্ধ বিশ্লেষণ করলে বোঝা যাচ্ছে৷ তিনি বলেন, ‘‘নিবন্ধে তামিম আহমেদ চৌধুরীর কুনিয়া বা জিহাদী ছদ্মনামটি ব্যবহার করা হয়েছে: আবু দুজানা আল-বাঙালী৷ তার পরিচয়ে লেখা হয়েছে যে তিনি ছিলেন বাংলায় খিলাফার সৈনিকদের সামরিক নেতা৷ এক্ষেত্রে ধরে নেওয়া যায় যে, বাংলাদেশে আইসিসের তথাকথিত আমীর, যার কুনিয়া আবু হানিফ, আর তামিম আহমেদ চৌধুরী দুইজন ভিন্ন ব্যক্তি৷''

উল্লেখ্য, জিহাদিদের অনলাইন কার্যক্রম বন্ধে বিভিন্ন ওয়েবসাইটের উদ্যোগ সত্ত্বেও রুমিয়ার মতো ম্যাগাজিনগুলোর অনলাইন সংস্করণ ইন্টারনেটে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে৷ সর্বশেষ সংস্করণ অনলাইনে ছড়িয়ে দিতে জিহাদিরা গুগল ড্রাইভ ব্যবহার করেছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন