1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Berlin | Pressekonferenz: Olaf Scholz und Mahmud Abbas
ছবি: Wolfgang Kumm/dpa/picture alliance
সমাজফিলিস্তিন

ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ‘হলোকাস্ট’-এর অভিযোগ

১৭ আগস্ট ২০২২

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের উপর ‘হলোকাস্ট’ চালানোর অভিযোগ করে তুমুল বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন৷ শলৎস-সহ জার্মানির রাজনৈতিক নেতারা কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন৷

https://p.dw.com/p/4FdGe

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস মঙ্গলবার ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের উপর ‘হলোকাস্ট’ চালানোর অভিযোগ করেছেন৷ বার্লিনে জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎসের সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এক প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন৷ ১৯৭২ সালে মিউনিখ অলিম্পিক প্রতিযোগিতার সময় ফিলিস্তিনি সন্ত্রাসী হামলায় ১১ জন ইসরায়েলি খেলোয়াড় ও কর্মকর্তা এবং এক জন জার্মান পুলিশকর্মীর হত্যার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এক সাংবাদিক প্রেসিডেন্ট আব্বাসকে প্রশ্ন করেন, তিনি এই ঘটনার জন্য ইসরায়েলের কাছে ক্ষমা চাইবেন কিনা৷ জবাবে আব্বাস বলেন, ইসরায়েল ১৯৪৭ সাল থেকে ফিলিস্তিনের ৫০টি জায়গায় ৫০টি গণহত্যা চালিয়েছে৷ সেইসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘‘৫০টি গণহত্যা, ৫০টি হলোকাস্ট৷’’ 

বলা বাহুল্য, বার্লিন শহরে তিনি এমন শব্দ বেছে নেওয়া বিষয়টিকে ঘিরে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে৷ ‘হলোকাস্ট’ শব্দটি শুনে জার্মান চ্যান্সেলরের মুখচ্ছবি চরম অস্বস্তি, ক্রোধ ও আতঙ্কে ভরে যায়৷ তবে সেই মুহূর্তে তিনি কোনো মন্তব্য করেন নি৷ কিন্তু প্রেসিডেন্ট আব্বাসের জবাবের পরেই চ্যান্সেলরের মুখপাত্র স্টেফেন হেবেস্ট্রাইট সংবাদ সম্মেলন আচমকা শেষ করে দেন৷ হেবেস্ট্রাইট পরে বলেন, শলৎস আব্বাসের বক্তব্য শুনে অত্যন্ত বিরক্ত হয়েছেন৷ চ্যান্সেলরের মুখপাত্র সেই সঙ্গে মনে করিয়ে দেন, বিশেষ করে জার্মানদের কাছে হলোকাস্ট শব্দটি আপেক্ষিক অর্থে ব্যবহারের প্রচেষ্টা অসহনীয় এবং একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়৷ 

একই সংবাদ সম্মেলনে শলৎস আব্বাসের মুখে ‘অ্যাপারথাইড’ শব্দটির বিরোধিতা করেন৷ মঙ্গলবারের ঘটনার পর জার্মান চ্যান্সেলর ‘বিল্ড’ সংবাদপত্রকে বলেন, হলোকাস্টের ভয়াবহতা ছোট করে দেখানো একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়৷

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ইয়াইর লাপিদ বলেন, ‘‘জার্মানির মাটিতে দাঁড়িয়ে মাহমুদ আব্বাস ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যেভাবে ‘৫০টি হলোকাস্ট’-এর অভিযোগ করলেন, তা শুধু নৈতিক অবমাননা নয়, সেইসঙ্গে বিশাল মিথ্যাচারও বটে৷ লাপিদ মনে করিয়ে দেন যে, হলোকাস্টে ৬০ লাখ ইহুদি নিহত হয়েছিলেন, যাদের মধ্যে ১৫ লাখ শিশুও ছিল৷ ইতিহাস কখনোই তাকে ক্ষমা করবে না৷’’

জার্মানিতে আব্বাসের বক্তব্য ও চ্যান্সেলরের প্রতিক্রিয়া নিয়ে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে৷ বিশেষ করে শলৎস যেভাবে সেই মুহূর্তে নীরব থেকেছেন, তার সমালোচনা করেছেন বিরোধী ইউনিয়ন শিবিরের নেতা ফ্রিডরিশ ম্যার্ৎস৷ তার মতে, অবিলম্বে চ্যান্সেলরের স্পষ্ট ভাষায় এমন মন্তব্যের বিরোধিতা করা এবং আব্বাসকে চলে যেতে বলা উচিত ছিল৷ সিডিইউ দলের আরেক নেতা আরমিন লাশেট বলেন, এর আগে জার্মান চ্যান্সেলরের দফতরে এত জঘন্য বক্তব্য রাখা হয় নি৷ উল্লেখ্য, আব্বাস এর আগেও হলোকাস্ট শব্দটিকে আপেক্ষিক অর্থে ব্যবহার করেছেন৷ ২০১৮ সালে তিনি বলেছিলেন, নাৎসি জার্মানির হাতে ৬০ লাখ ইহুদির গণহত্যার আসল কারণ মোটেই ইহুদি বিদ্বেষ ছিল না, বরং সুদখোর মহাজন হিসেবে সমাজে তাদের অবস্থানই এর মূল কারণ৷

এসবি/কেএম (ডিপিএ/এপি)

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

বিএনপি কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের একটি মুহূর্ত

সমাবেশের আগেই সংঘাত-প্রাণহানি, কী হবে ১০ ডিসেম্বর?

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান