ইসরায়েলের পার্লামেন্টে বাজলো নেতানিয়াহুর বিদায়ঘণ্টা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 13.06.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইসরায়েল

ইসরায়েলের পার্লামেন্টে বাজলো নেতানিয়াহুর বিদায়ঘণ্টা

আট দলের জোটের সরকারের পক্ষে ভোট দিলো ইসরায়েলের পার্লামেন্টে ক্নেসেট৷ এর মাধ্যমে ১২ বছর ক্ষমতায় থাকা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর আনুষ্ঠানিক বিদায় নিশ্চিত হলো৷

রোববার ইসরায়েলের আইনপ্রণেতারা এক ভোটের মাধ্যমে জোট সরকারের পক্ষে নিজেদের সমর্থন জানান৷ বিভিন্ন ইস্যুতে বিপরীত মেরুতে অবস্থান করা আটটি দল কেবল নেতানিয়াহুর শাসনের অবসান বিষয়ে একমত হয়ে এই জোট সরকার গঠন করেছে৷ ১২০ আসনের ক্নেসেটে ৬০-৫৯ ব্যবধানে জিতে সরকার গঠন করছে এই জোট৷

রোববারই নেতানিয়াহুর একসময়ের মিত্র নাফতালি বেনেট ইসরায়েলের নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন। ইয়েশ আতিদ পার্টির মাইকে লেভিকে ক্নেসেটের স্পিকার নির্বাচিত করা হয়েছে৷

ক্নেসেটের বিশেষ অধিবেশন, উত্তেজনা

সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিদায় এবং নতুন প্রধানমন্ত্রীর শপথ উপলক্ষ্যে বিশেষ অধিবেশন আয়োজন করা হয় ক্নেসেটে৷ নেতানিয়াহু এবং বেনেট দুজনেই অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন৷ দুজনের বক্তব্যের সময়েই বিপক্ষের আইনপ্রণেতারা দুয়োধ্বনি দেন৷

বক্তব্যে নাফতালি বেনেট তার জোট ‘পুরো ইসরায়েলের প্রতিনিধিত্ব’ করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন৷ বেনেটকে উদ্ধৃত করে ইসরায়েলের সংবাদমাধ্যম হারেৎস জানিয়েছে, ইসরায়েল রাষ্ট্র এবং ইসরায়েলের আরব নাগরিকদের মধ্যে সম্পর্কের এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে তার জোট সরকার৷ নেতানিয়াহুকে তার ভূমিকার জন্য ধন্যবাদও জানান বেনেট৷

ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়েও মন্তব্য করেন বেনেট। তিনি বলেন, ‘‘ইসরায়েল ইরানকে পরমাণু বোমার অধিকারী হতে দিবে না৷’’

এদিকে, সাবেক ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী এবং বর্তমানে বিরোধী দল ডানপন্থি লিকুদ পার্টির প্রধান নেতানিয়াহু জানিয়েছেন বিরোধী ভূমিকায় তার দল শক্তিশালী ভূমিকা পালন করবে।

এডিকে/এফএস

নির্বাচিত প্রতিবেদন