ইসরায়েলি দুই সেনাকে ফিলিস্তিনি কিশোরীর চড় | বিশ্ব | DW | 03.01.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

ইসরায়েলি দুই সেনাকে ফিলিস্তিনি কিশোরীর চড়

ইসরায়েলে কিছু হওয়া মানেই যেন সংবাদ শিরোনামে উঠে আসা৷ হ্যাঁ, এবারও সেরকমটাই হয়েছে৷ ইসরায়েলি দু'জন সেনাকে ১৭ বছর বয়সি এক ফিলিস্তিনি কিশোরীর দেওয়া চড়ের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ইন্টারনেট জগতে৷

জেরুসালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণা করার প্রতিবাদে পশ্চিম তীরে গত শুক্রবার বিকেলে বিক্ষোভ করছিল ফিলিস্তিনিরা৷ এ সময় ফিলিস্তিনের সমাজকর্মী কিশোরী আহেদ তামিমির পরিবারের এক সদস্যের মাথায় গুলি করে ইসরায়েলি সেনারা৷ এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন তামিমি৷

এ ঘটনার এক পর্যায়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা দু'জন ইসরায়েলি সেনাকে কয়েক দফায় চড় দেন তিনি৷ সেই দৃশ্য পাশ থেকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন কেউ একজন৷ ইসরায়েলি সেনাদের মারার সে ভিডিও দ্রুতই ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেট জগতে৷

ওই কিশোরীর চর খেয়ে তৎক্ষণাৎ কোনো প্রতিক্রিয়া না দেখালেও পরবর্তীতে অ্যাকশনে যায় ইসরায়েলি সেনারা৷ চড়ের প্রতিশোধ নিতে তারা মঙ্গলবার রাতে ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের উত্তর রামাল্লার নবী সালেহ গ্রাম থেকে তামিমিসহ তার মা ও ২১ বছরের এক চাচাত বোনকে ধরে নিয়ে যায়৷ পরে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তাকে গ্রেফতার দেখায় ইসরায়েলি সেনারা৷

ইসরায়েলি সেনাদের অভিযোগ ভিডিও ধারণের আগে তাদের প্রতি পাথর ছুঁড়ে মারা হচ্ছিল৷ কিন্তু তামিমির বাবা সেনাদের সে দাবি প্রত্যাখ্যান করে এক ফেসবুক পোস্টে বলেন, ‘‘সেসময়ে সেনারা একটি শিশুর মাথায়গুলিকরতে যাচ্ছিল৷'' এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে ইসরায়েলের শিক্ষামন্ত্রী নাফতালি বেনেট বলেন, ‘‘সেনাদের মারধরের পরিণাম হবে সারা জীবন জেল খাটা৷''

এমএম/ডিজি

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন