ইরান-যুক্তরাষ্ট্র সংকটে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিলো ইরাক | বিশ্ব | DW | 27.05.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

ইরান-যুক্তরাষ্ট্র সংকটে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিলো ইরাক

যুক্তরাষ্ট্র ও ইরান– দুই দেশের সঙ্গেই ইরাকের বর্তমানে ভালো সম্পর্ক রয়েছে৷ এর মধ্যে ইরান আবার ইরাকের প্রতিবেশী দেশ৷ ফলে যুদ্ধ বাঁধলে ইরাকেও সমস্যা তৈরি হতে পারে৷

এই অবস্থায় সমস্যা এড়াতে ইরাকের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মেদ আল-হাকিম মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন৷ রবিবার সফররত ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এই প্রস্তাব দেন তিনি৷ ‘‘আমরা সহায়তা ও মধ্যস্থতার চেষ্টা করছি৷ একটি সন্তোষজনক সমাধানে পৌঁছতে বাগদাদ কাজ করবে,'' বলেন আল-হাকিম৷ তিনি বলেন, তেহরানের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটনের একতরফা পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ইরাক৷

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে উত্তেজনার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে৷ ইরান যুক্তরাষ্ট্রের স্থাপনার বিরুদ্ধে হামলা করতে পারে, এই আশঙ্কায় ঐ অঞ্চলে অতিরিক্ত দেড় হাজার সৈন্য পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ এর আগে এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার ও কয়েকটি বি-৫২ বোমারু বিমান মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বছর ইরানের সঙ্গে ছয় দেশের স্বাক্ষরিত পরমাণু চুক্তি থেকে সরে আসার পর দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়৷ ইরান পরমাণু চুক্তি টিকিয়ে রাখতে ইউরোপের সহায়তা চেয়েছে৷

 দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হলে প্রতিবেশী দেশ হিসেবে ইরাক সমস্যায় পড়তে পারে৷ এছাড়া ইরানের অনেক শিয়া মুসলিম প্রতিবছর ইরাকের বিভিন্ন শিয়া স্থাপনা সফরে যায়৷ কিন্তু সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র নতুন করে ইরানের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় দেশটির অর্থনীতির উপর চাপ পড়েছে৷ ফলে ইরাক সফররত ইরানিদের ক্রয়ক্ষমতা কমে গেছে৷

ইরাকি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আল-হাকিম বলেন, ‘‘ইরানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা অনর্থক এবং আমরা ইরানের পক্ষে আছি৷''

ইরানের  পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফ ইরাক সফরে গিয়ে সে-দেশের প্রেসিডেন্ট বারহাম সালেহ ও প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দেল মাহদির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন৷ এই সময় তাঁরা যুদ্ধপরিস্থিতি এড়ানোর উপর জোর দেন৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন