ইরানের প্রেসিডেন্ট বললেন, ‘আইএস শেষ′ | বিশ্ব | DW | 21.11.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মধ্যপ্রাচ্য

ইরানের প্রেসিডেন্ট বললেন, ‘আইএস শেষ'

জাতীয় টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রোহানি বলেছেন, তথাকথিত ইসলামি জঙ্গি সংগঠন আইএস প্রায় শেষ হয়ে গেছে৷ অন্য এক বৈঠকে ভ্লাদিমির পুটিন ও বাশার আল-আসাদও আইএস-এর অবধারিত পরাজয় নিয়ে কথা বলেছেন৷

গত কয়েক দিনে সিরিয়া এবং ইরাকে আইএস-এর অবস্থান আরো দুর্বল হয়েছে৷ সিরিয়ায় শুধু আলবু কামাল এলাকার ওপরই তথাকথিত ইসলামি জঙ্গি সংগঠনটির নিয়ন্ত্রণ ছিল৷ গত সপ্তাহান্তে বাশার আল-আসাদের অনুগত বাহিনী এবং তাঁর মিত্ররা সেখান থেকেও আইএস-কে হঠিয়েছে৷ ইরাকে শুধু রাওয়া এলাকাতেই নিয়ন্ত্রণ বজায় রাখতে পেরেছিল আইএস৷ ইরাকের সেনাবাহিনী সম্প্রতি সেখানেও দখল পুনরুদ্ধার করেছে৷

এই পরিস্থিতিতেই ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে রোহানি বলেন, ‘‘আল্লাহর ইচ্ছা এবং এ অঞ্চলের মানুষের শক্ত প্রতিরোধের কারণে আজ আমরা এ কথা বলতেই পারি যে, এই শয়তান (আইএস)-কে মানুষের মাথা থেকে হয় সরিয়ে ফেলা হয়েছে, নয়ত তাদের আকার ছোট করা হয়েছে৷''

ইরানের রেভোলিউশনারি গার্ডের এক ঊর্ধতন কর্মকর্তা অবশ্য মনে করেন, আইএস পুরোপুরি হেরে গেছে৷ মঙ্গলবার রোহানির কাছে পাঠানো এক বার্তায় তিনি এমন দাবি করেন৷ তাঁর এ বার্তা ইরানের সংবাদমাধ্যম গুরুত্ব দিয়ে প্রচার করেছে৷

এদিকে সিরিয়া বিষয়ক সম্মেলনের আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন এবং সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে দু'দেশের চলমান যুদ্ধ নিয়ে আলোচনা করেছেন৷ পুটিন বলেছেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বিজয় নিশ্চিত করতে এখনো অনেক বাকি, তবে রুশ বাহিনী রাষ্ট্র হিসেবেসিরিয়ার অস্তিত্ব রক্ষাকরেছে৷ ক্রেমলিন থেকে প্রচার করা এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়৷

বিবৃতি অনুযায়ী সিরিয়ায় সিরীয় এবং রুশ বাহিনীর আইএসবিরোধী যৌথ অভিযানের সমাপ্তিও ঘোষণা করেছেন পুটিন৷ এ সময় তিনি বলেন, ‘‘রাষ্ট্র হিসেবে সিরিয়াকে রক্ষা করা গেছে – এ জন্য রাশিয়ার সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ দিতেই হবে৷ সিরিয়ায় স্থিতাবস্থা ফেরানোর জন্য অনেক কিছু করা হয়েছে৷''

বুধবার সিরিয়া সংকটের শান্তিপূর্ণ সমাধানের উপায় খুঁজতে কৃষ্ণ সাগরের সোচি-তে ইরানের প্রেসিডেন্ট রোহানি,  তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এর্দোয়ান এবং সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট আসাদের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেবেন পুটিন৷ সিরিয়ায় আইএসবিরোধী চলমান যুদ্ধে রাশিয়া এবং ইরান আসাদের পাশে রয়েছে৷ অন্যদিকে ২০১৪ সালে গৃহযুদ্ধ শুরুর পর থেকেই আসাদবিরোধীদের সমর্থন দিয়ে আসছে তুরস্ক৷

আগামী ২৮ নভেম্বর সিরিয়া সংকট নিয়ে জাতি সংঘের উদ্যোগেও একটি শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে৷

এসিবি/ডিজি (রয়টার্স, এএফপি)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়