1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
ছবি: picture-alliance/dpa/Y. Arhab

কালো তালিকাভুক্ত সৌদি জোট

৬ অক্টোবর ২০১৭

ইয়েমেনে যুদ্ধের কারণে ২০১৬ সালে ১,৩৪০ জন শিশু হতাহতের শিকার হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব৷ এর জন্য অন্যতম দায়ী সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটকে কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে৷

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%87%E0%A6%AF%E0%A6%BC%E0%A7%87%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%87-%E0%A6%B6%E0%A6%BF%E0%A6%B6%E0%A7%81-%E0%A6%B9%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE-%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A7%9F-%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A7%8B-%E0%A6%A4%E0%A6%BE%E0%A6%B2%E0%A6%BF%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%AD%E0%A7%81%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%A4-%E0%A6%B8%E0%A7%8C%E0%A6%A6%E0%A6%BF-%E0%A6%9C%E0%A7%8B%E0%A6%9F/a-40842624

জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বৃহস্পতিবার তাঁর বার্ষিক ‘শিশু ও সশস্ত্র সংঘাত’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলেন, ২০১৬ সালে বিভিন্ন দেশে যুদ্ধের শিকার হয়ে আট হাজারেরও বেশি শিশু হতাহত হয়েছে৷

প্রতিবেদন বলছে, ইয়েমেনে মোট হতাহতের শিকার হওয়া শিশুদের মধ্যে ৬৮৩ জনের জন্য দায়ী সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট৷ কারণ এই সময়ে কয়েকটি স্কুল ও হাসপাতালে হামলা চালায় এই জোট৷ এজন্য জাতিসংঘের বার্ষিক ঐ প্রতিবেদনের সঙ্গে যুক্ত করা কালো তালিকায় সৌদি জোটের নাম রয়েছে৷ গতবছরেরও প্রতিবেদনেও সৌদি আরবের নাম উল্লেখ করা হয়েছিল৷ তবে পরে জাতিসংঘের তৎকালীন মহাসচিব বান কি-মুন এই নাম প্রত্যাহার করতে বলেছিলেন৷ সেই সময় তিনি দাবি করেছিলেন, নাম প্রত্যাহার করতে সৌদি আরব চাপ দিয়েছিল৷ তা না হলে শিশুদের জন্য সৌদি আরব যে তহবিল দিত তা হুমকির মুখে পড়ত বলেও জানান তিনি৷ সৌদি আরব অবশ্য হুমকি দেয়ার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে৷

বিতর্ক এড়াতে জাতিসংঘের মহাসচিব এবার কালো তালিকাটি দুই অংশ ভাগ করেছেন৷ প্রথম অংশে যেসব দেশ ও গোষ্ঠী শিশুদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা উন্নয়নে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি তাদের নাম রয়েছে৷ আর দ্বিতীয় অংশ আছে তাদের নাম যারা শিশুদের রক্ষায় ‘ব্যবস্থা নিয়েছে’৷ সৌদি আরবের নাম আছে তালিকার এই অংশে৷ অর্থাৎ দেশটি শিশুদের রক্ষায় কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে৷

কালো তালিকায় সৌদি আরবের নাম অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বা এইচআরডাব্লিউ, সেভ দ্য চিলড্রেন এবং ওয়াচলিস্ট অন চিলড্রেন অ্যান্ড আর্মড কনফ্লিক্ট৷

এদিকে, সৌদি আরবের বিরোধিতা সত্ত্বেও ইয়েমেনের মানবাধিকার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে সেখানে একটি বিশেষজ্ঞ দল পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতিসংঘ৷

শিশু হত্যা বন্ধ না করা পর্যন্ত সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা এইচআরডাব্লিউ৷

সংস্থার শিশু অধিকার বিষয়ক পরিচালক জো বেকের বলেন, ‘‘ইয়েমেনে এই বেআইনি হামলা বন্ধ করতে দৃঢ় পদক্ষেপ নেওয়া ও আক্রান্ত শিশুদের প্রয়োজনীয় সাহায্য নিশ্চিত করতে পদক্ষেপ নিতে হবে৷’’ তিনি বলেন, ‘‘সব সরকারকে সৌদি অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করতে হবে৷’’

এএম/জেডএইচ (রয়টার্স, এএফপি, এপি)

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Saudi-Arabien | Bundeskanzler Olaf Scholz und Mohammed bin Salma

জ্বালানির খোঁজে উপসাগরীয় দেশগুলোতে জার্মান চ্যান্সেলর

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান