ইন্দোনেশিয়ায় সাম্প্রদায়িকতা রোধে অ্যাপ চালু | বিশ্ব | DW | 29.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইন্দোনেশিয়া

ইন্দোনেশিয়ায় সাম্প্রদায়িকতা রোধে অ্যাপ চালু

সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মীয় উসকানি রোধে সোমবার একটি মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে ইন্দোনেশিয়া৷ কেউ যদি কারো ধর্মবিশ্বাসে আঘাত হেনে কথা বলে তাহলে কোনো ব্যক্তি এর মাধ্যমে ওই ব্যক্তি বা সংগঠনের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে পারবে৷

ইন্দোনেশিয়ায় কোনো রাষ্ট্রধর্ম নেই৷ ইসলাম, হিন্দু, বৌদ্ধ, ক্যাথলিকসহ ৬টি ধর্ম এবং আদিবাসীদের নিজস্ব ধর্ম প্রচলিত আছে সেখানে, যদিও দেশটির ৯০ শতাংশ মানুষই ইসলাম ধর্মাবলম্বী৷ কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে মুসলিম অধ্যুষিত এই দেশটিতে সাম্প্রদায়িক তৎপরতা বেড়ে চলেছে৷ সংখ্যালঘু নির্যাতনের নানা ঘটনা ঘটছে৷ বেশ কয়েকটি মুসলিম বিচ্ছিন্নতাবাদী দলকে এর জন্য দায়ী করা হচ্ছে৷

অ্যাপটির নাম দেয়া হয়েছে ‘স্মার্ট প্যাকেম’৷ সেখানে আহমাদিয়া, গাফাতারসহ বেশ কয়েকটি ইসলামি কট্টরপন্থি দলের নামের তালিকা রয়েছে৷ দেশটির সর্বোচ্চ ইসলামি কাউন্সিল তাদের বিপথগামী দল হিসেবে চিহ্নিত করেছে৷ অ্যাপের মাধ্যমে যে কোনো ব্যক্তি এই দলগুলোর মধ্যে কোন কোনটি ক্ষতিকর এবং কেন ক্ষতিকর তা চিহ্নিত করতে পারবেন৷

তবে ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় মানবাধিকার সংস্থার একজন কমিশনার আমিরউদ্দীন আল রাহাব মনে করেন, ‘‘এর ফলে মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি হতে পারে৷ যখন প্রতিবেশীরা একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করবে, তখন জটিল সমস্যা দেখা দেবে৷’’

এই ফ্রি অ্যাপটি গুগল ইনকর্পোরেশনের গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করা যাবে৷

চলতি বছর লম্বক দ্বীপে কয়েকটি বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয় আহমাদিয়া সম্প্রদায়ের কিছু ব্যক্তি৷ ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় অনেক মানুষ৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

গতবছরের জুলাই মাসের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন