ইন্দোনেশিয়ায় ত্রাণ লুটপাট, আটক ৯২ | বিশ্ব | DW | 04.10.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

প্রাকৃতিক দুর্যোগ

ইন্দোনেশিয়ায় ত্রাণ লুটপাট, আটক ৯২

ইন্দোনেশিয়ায় একটি দ্বীপে ভূমিকম্প এবং সুনামিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪২৪ জন৷ গুরুতর আহত আড়াই হাজার৷ বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে দেশটির জাতীয় দুর্যোগ সংস্থা৷

ভূমিকম্প ও সুনামিতে ক্ষতিগ্রস্ত আরকাম বাবু রহমান ভাসমান মসজিদ

ভূমিকম্প ও সুনামিতে ক্ষতিগ্রস্ত আরকাম বাবু রহমান ভাসমান মসজিদ

গত শুক্রবার সুলাওয়েসি প্রদেশে ভূমিকম্প এবং সুনামি আঘাত হানে৷ এখনো অনেকেই কাদা-মাটির নীচে চাপা পড়ে আছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় দুর্যোগ সংস্থার এক মুখপাত্র৷ তিনি বলছেন, যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় দুর্গত এলাকায় পৌঁছে তাঁদের উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে না৷ তিনি জানিয়েছেন, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান এবং অন্যান্য দেশের ১১টি বিমান ত্রাণ বিতরণে কাজ করছে৷

এদিকে, সুলাওয়েসি দ্বীপে ত্রাণ সামগ্রী লুট করার জন্য এখন পর্যন্ত ৯২ জনকে আটক করেছে ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ৷ বৃহস্পতিবার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডেডি প্রাসেতিও জানান, সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা হলো পালু৷ সেখানে নিরাপত্তা বাড়ানোর চেষ্টা করছেন তাঁরা৷

দুর্গতদের কাছে ত্রাণ পৌঁছাচ্ছে খুব ধীর গতিতে৷ প্রত্যন্ত গ্রামগুলোতে কিছু কিছু দোকান দুর্গতদের জন্য খুলে দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ৷ জানিয়েছেন, দোকান মালিকদের ক্ষতি পুষিয়ে দেয়া হবে৷ ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত বিমানবন্দরে বিমান চলাচল শুরু হবে আজ সন্ধ্যা থেকে৷ তবে পালু'র বিমানবন্দরটি চালু হতে আরো কিছুটা সময় লাগবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ৷ পালুতে আহতদের উদ্ধারে সাহায্য করছে সেনাবাহিনী৷ হেলিকপ্টারের সাহায্যে চলছে উদ্ধার কাজ৷ এদের মধ্যে রয়েছে একদল শিক্ষার্থী, যাঁদের মেদান শহরে একটি ইসলামিক প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার কথা ছিল৷

৭০ হাজার মানুষ এখনো আশ্রয়শিবিরে অবস্থান করছে৷ যাঁরা ঘর-বাড়ি হারিয়েছেন, তাঁরা কবে নিজেদের ঘর-বাড়ি ফিরে পাবেন, তা অনিশ্চিত৷ জাতিসংঘ দেড় কোটি মার্কিন ডলার সাহায্যের ঘোষণা দিয়েছে৷

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

১ অক্টোবরের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন