ইন্দোনেশিয়ায় এবার পুলিশ কার্যালয়ে বোমা | বিশ্ব | DW | 14.05.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইন্দোনেশিয়া

ইন্দোনেশিয়ায় এবার পুলিশ কার্যালয়ে বোমা

রবিবার ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া শহরে তিনটি গির্জার উপর আত্মঘাতী বোমা আক্রমণের পর সোমবার সেখানকার প্রধান পুলিশ কার্যালয়ে একটি বোমা ফেটেছে৷ আট বছরের কন্যাসন্তানসহ এক পাঁচ সদস্যের পরিবার দৃশ্যত এই হামলার জন্য দায়ী৷

default

সোমবার স্থানীয় পুলিশ কার্যালয়ে হামলার পর সন্ত্রাস-বিরোধী পুলিশের পাহারা

সুরাবায়া ইন্দোনেশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর৷ পাঁচ সদস্যের পরিবারটি সুরাবায়ার মুখ্য পুলিশ কার্যালয়ের উপর মোটর সাইকেল থেকে আক্রমণ চালায় বলে প্রকাশ৷

মাত্র গতকালই সুরাবায়ার তিনটি গির্জার উপর বোমা হামলায় অন্তত আট জন নিহত ও অনেকে আহত হন৷ এইসব আক্রমণের জন্য যে পরিবারটি দায়ী, সেই পরিবারেও দু'টি নয় ও বারো বছরের কিশোরী ছিল৷

এ পর্যন্ত যা জানা গেছে

-    সকাল আটটা পঞ্চাশ মিনিটে পুলিশ কার্যালয়ের বাইরে অবস্থিত সিকিউরিটি চেকপয়েন্টে একটি মোটরসাইকেল বোমা ফাটে বলে পুলিশ জানিয়েছে;

-    পাঁচ সদস্যের পরিবারটি দু'টি মোটরসাইকেলে চড়ে আসে৷ শুধুমাত্র আট বছর বয়সের মেয়েটি এই আত্মঘাতী বোমা হামলা থেকে প্রাণে বাঁচে, পরিবারের বাকি চার সদস্য নিহত হয়৷ ঘটনায় চারজন পুলিশ কর্মকর্তা ও ছ'জন বেসামরিক নাগরিকের আহত হয়েছে বলে জানা গেছে

-    সিসিটিভির ফুটেজে একটি বিস্ফোরণের দৃশ্য দেখা গেলেও, মোট দু'টি বোমা ফাটানো হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষের ধারণা;

-    ঘটনার বেশ কয়েক ঘণ্টা আগে সুরাবায়ার দক্ষিণে একটি ফ্ল্যাটে বিস্ফোরণ ঘটার পর, ফ্ল্যাটের মালিক পুলিশের গুলিতে নিহত হয়৷

Anschlagsserie auf Kirchen in Indonesien

রবিবার তিন গির্জায় হামলা হয়

সরকার সন্ত্রাসবিরোধী আইনের সংস্কার করবে

ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো সুরাবায়ার হামলার নিন্দা করে বলেছেন যে, ইসলামি জঙ্গিদের মোকাবিলা করার জন্য নতুন সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আইন চালু করা হবে৷ তিনি বলেন, ‘‘এটা কাপুরুষদের কাজ, বর্বর ও মর্যাদাহীন৷’’

দেশের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা মন্ত্রী ভিরান্তো বলেন যে, সংস্কারকৃত আইনের বলে কর্তৃপক্ষ এ ধরনের আক্রমণ রোখার জন্য ‘‘প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপ’’ নিতে পারবেন৷

ইন্দোনেশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম মুসলিম অধ্যুষিত দেশ৷ সাম্প্রতিক কয়েক বছরে এখানে স্বদেশি ইসলামি জঙ্গিবাদ মাথা চাড়া দিয়েছে, যা অংশত তথাকথিত ইসলামি জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের সঙ্গে যুক্ত

এ ধরনের জঙ্গি হামলার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ঘটনাটি ঘটে ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে৷ সেবার চার আত্মঘাতী বোমারু ও বন্দুকধারী রাজধানী জাকার্তার একটি ব্যবসায়িক এলাকার উপর আক্রমণ চালায়৷

ইন্দোনেশিয়ায় বোমা সন্ত্রাসের সবচেয়ে মারাত্মক ঘটনাটি ঘটে ২০০২ সালে, যখন পর্যটকদের প্রিয় বালি দ্বীপে এক সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে এক রাত্রে ২০২ জন প্রাণ হারান৷ নিহতদের অধিকাংশই ছিলেন বিদেশি৷

এসি/এসিবি (এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন