ইথিওপিয়ায় শহর দখলের দাবি সরকারের | বিশ্ব | DW | 02.12.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইথিওপিয়া

ইথিওপিয়ায় শহর দখলের দাবি সরকারের

রাজধানীর কাছে একটি শহর টিপিএলএফের কাছ থেকে আবার দখল করার দাবি সরকারের।

সেনার সঙ্গে ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী।

সেনার সঙ্গে ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী।

ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রীর অফিস দাবি করেছে, বুধবার টিগ্রে বাহিনীর কাছ থেকে রাজধানী আদ্দিস আবাবার উত্তরের একটি শহর দখল করে নিয়েছে সেনা। সরকারের দাবি, রাজধানী থেকে ২২০ কিলোমিটার উত্তরপূর্বের শহর এবং বেশ কিছু গ্রাম ও গঞ্জ সেনা আবার টিগ্রে বাহিনীর কাছ থেকে ছিনিয়ে নিতে পেরেছে।

পরে সেনাবাহিনীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তারা ইউনেস্কো ঘোষিত ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট লালিবেলাও দখল করেছে। গত অগাস্টে টিগ্রে বাহিনী এই জায়গাগুলি দখল করে নিয়েছিল।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সেনা বনাম টিগ্রে বাহিনীর লড়াই তীব্র হয়েছে। টিগ্রে বাহিনী এবার রাজধানীর দিকে অগ্রসর হবে বলে জানায়। সরকারও নাগরিকদের হাতে অস্ত্র তুলে নিতে বলে।

অ্যামেরিকা, ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্য তাদের নাগরিকদের ইথিওপিয়া ছেড়ে দ্রুত দেশে ফেরার নির্দেশ দেয়।

প্রধানমন্ত্রী অ্যাবি আহমেদ জানিয়েছিলেন, তিনি সামনে থেকে সেনাকে নেতৃত্ব দেবেন। সম্প্রতি সরকারি মিডিয়া প্রধানমন্ত্রীর সেনা ইউনিফর্ম পরা একটি ছবিও প্রকাশ করে। রোববার সরকরি মিডিয়া দাবি করে, সেনা শিফা শহরের নিয়ন্ত্রণ নিতে পেরেছে। প্রধানমন্ত্রীও বলেন, আমহারা অঞ্চলের দখলও এবার সেনা নিয়ে নেবে। স্থানীয় বাসিন্দারা সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, টিগ্রে বাহিনী মঙ্গলবার শহর ছেড়েছে। 

জিএইচ/এসজি(এএফপি, রয়টার্স)

সংশ্লিষ্ট বিষয়