ইউরোপের গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানে হ্যাকারদের হামলা | বিশ্ব | DW | 20.02.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

ইউরোপের গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানে হ্যাকারদের হামলা

মাইক্রোসফট জানিয়েছে, ‘ফ্যান্সি বেয়ার' নামে রুশ হ্যাকারদের একটি দল ইউরোপের বেশ কয়েকটি ‘থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক'-এ সাইবার হামলার পরিকল্পনা করছে৷ মে মাসে অনুষ্ঠেয় ইউরোপীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে৷

২০১৮ সালের শেষ থেকেই শুরু হয়েছে ইউরোপের বিভিন্ন ‘থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক' ও বেসরকারি সংস্থার ওয়েবসাইট হ্যাক করার প্রচেষ্টা৷ বুধবার প্রকাশিত মাইক্রোসফটের একটি ব্লগপোস্টে এই তথ্য দেয়া হয়েছে৷

অ্যাসপেন ইন্সটিটিউট, জার্মান মার্শাল ফান্ড ও জার্মান ফরেন রিলেশন কাউন্সিলের মতো গুরুত্বপূর্ণ সংস্থার ১০৪টি অ্যাকাউন্ট ইতিমধ্যে  সাইবার-হামলায় আক্রান্ত হয়েছে বলে ঐ ব্লগপোস্টে জানানো হয়৷

মাইক্রোসফটের মতে, হামলার পেছনে রয়েছে আলোচিত হ্যাকার-দল ‘স্ট্রনটিয়াম', যা ‘ফ্যান্সি বেয়ার' ও ‘এপিটি২৮' নামেও পরিচিত৷

পেছনে রাশিয়া?

বিশেষজ্ঞদের মতে, রাশিয়ার সামরিক গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এই হ্যাকারদের মদত দিচ্ছে৷ ২০১৫ সালে জার্মান সংসদের ওয়েবসাইট হ্যাক হওয়ার পেছনেও এই সংস্থাগুলি জড়িত ছিল বলে তাদের ধারনা৷

হ্যাকাররা সেই সব সংস্থাকে টার্গেট করছে, যারা মূলত ট্রান্স-অ্যাটলান্টিক নীতি, গণতন্ত্র চর্চা ও নির্বাচনি নীতি নিয়ে কাজ করে থাকে৷ বেলজিয়াম, ফ্রান্স, জার্মানি, পোল্যান্ড, সার্বিয়া ও রোমানিয়ায় এসব সংস্থার হয়ে কাজ করা কর্মচারীদের তথ্য পেতে ভুয়া ওয়েবসাইট ও ভাইরাস আক্রান্ত ইমেলের সহায়তা নেয়া হয়৷

আসন্ন ইউরোপীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ধারাবাহিক এই হামলাগুলো হচ্ছে বলে ব্লগপোস্টে জানানো হয়৷

ইতিমধ্যে, এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে  মাইক্রোসফট জার্মানি, ফ্রান্স ও স্পেনসহ ইউরোপের ১২টি দেশে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক নতুন সফটওয়্যার ‘অ্যাকশন গার্ড' চালুর ঘোষণা করেছে৷

এসএস/জেডএইচ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন