ইইউ ঐক্যে চিড় কাটাতে আলোচনা চলছে | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 20.07.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইউরোপ

ইইউ ঐক্যে চিড় কাটাতে আলোচনা চলছে

‘মিশন ইমপসিবল' সম্ভব করতে প্রায় রেকর্ড সময় ধরে ইইউ শীর্ষ নেতারা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন৷ করোনা সংকটের মুখে অনুদান, ঋণ ও বাজেট নিয়ে তাদের মতপার্থক্য দূর হচ্ছে না৷ সোমবার ঐকমত্যের আশা করা হচ্ছে৷

বিপদ বা সংকটের মুখে ঐক্যবদ্ধ থাকা কতটা জরুরি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ নেতাদের সে বিষয়ে সচেতন থাকা উচিত৷ করোনা সংকটের জের ধরে অভূতপূর্ব অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে এই রাষ্ট্রজোট৷ দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এমন মন্দার আশঙ্কা কখনো দেখা যায় নি৷ বিপর্যস্ত অর্থনীতি চাঙ্গা করতে অবিলম্বে পদক্ষেপ না নিলে এমনকি ইইউ-র অস্তিত্বের সংকটের আশঙ্কা করছে অনেকে৷ তা সত্ত্বেও কিছুতেই সেই প্রণোদনা কর্মসূচি সম্পর্কে ঐকমত্যে আসতে পারছেন না ইইউ নেতারা৷ বহুকাল পর শুক্রবার ব্রাসেলসে সশরীরে মিলিত হওয়ার পর থেকে তর্ক-বিতর্ক চলে আসছে৷ শীর্ষ সম্মেলনের সময়সীমা বার বার বাড়ানো হচ্ছে৷ সোমবার সকালেও নিষ্পত্তি হয় নি৷

ইইউ সরকার পরিষদের প্রধান শার্ল মিশেল হাল ছাড়তে প্রস্তুত নন৷ শুক্রবার থেকে তিনি শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় কথা বলে ঐকমত্যের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন৷ তিনি মনে করিয়ে দিয়েছেন, যে ইইউ দেশগুলিতে করোনা ভাইরাসের কারণে এখনো পর্যন্ত ছয় লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে৷ অর্থনীতি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে৷ তিন দিন ধরে অক্লান্ত পরিশ্রমের পর তিনি ইইউ-র ‘মিশন ইমপসিবল' সম্ভব হয়েছে, সংবাদপত্রে এমন শিরোনাম দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেন৷ শেষ করে ‘ফ্রুগাল ফোর' বলে পরিচিত চারটি দেশ – নেদারল্যান্ডস, অস্ট্রিয়া, ডেনমার্ক ও সুইডেনের নেতাদের সংশয় দূর করতে তিনি প্রস্তাবিত আর্থিক সহায়তার খসড়ায় বার বার রদবদল করেছেন৷ কিন্তু দরকষাকষি বন্ধ হচ্ছে না৷

৭৫,০০০ কোটি ইউরো অঙ্কের প্রস্তাবিত কর্মসূচির বণ্টন নিয়ে মতপার্থক্য কিছুতেই কাটছে না৷ ‘ফ্রুগাল ফোর' গোষ্ঠী ও ফিনল্যান্ড বিনা শর্তে অনুদানের অঙ্ক যতটা সম্ভব কম রাখতে চায়৷ তার বদলে ঋণের অঙ্ক বাড়ানোর প্রস্তাব দিচ্ছে এই দেশগুলি৷ অন্যদিকে ইটালি, স্পেন ও ফ্রান্সের মতো দেশ বর্তমান সংকটের মুখে পরিস্থিতি সামাল দিতে বিনা শর্তে দ্রুত অনুদানের পক্ষে৷ উত্তরের দেশগুলির আপত্তি কাটাতে দীর্ঘমেয়াদী ইইউ বাজেটে রিবেট বা ছাড়ের অঙ্ক বাড়ানোর প্রস্তাব রাখা হয়েছে৷ ইটালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপে কন্টে ৪টি দেশের বিরুদ্ধে ব্ল্যাকমেলের অভিযোগ করেন৷

ইইউ শীর্ষ সম্মেলনে হাঙ্গেরি ও পোল্যান্ডের বর্তমান সরকারের বিতর্কিত নীতিকে কেন্দ্র করেও মতপার্থক্য সৃষ্টি হয়েছে৷ গণতান্ত্রিক নীতি বর্জন করলে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ হিসেবে অনুদান বন্ধ রাখার প্রস্তাবের বিরুদ্ধে তীব্র আপত্তি জানাচ্ছে এই দুই দেশের সরকার৷ এমন শর্ত কার্যকর হলে এই দুই দেশের সরকার আর্থিক কর্মসূচির বিরুদ্ধে ভেটো প্রয়োগের হুমকি দিচ্ছে৷

এসবি/কেএম (ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন