আহত মার্কিন সৈন্যের পুরুষাঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হবে | বিশ্ব | DW | 10.12.2015
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

আহত মার্কিন সৈন্যের পুরুষাঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হবে

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এটাই হতে যাচ্ছে প্রথম ঘটনা৷ জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসকরা এই অস্ত্রোপচার করবেন৷ চলতি বছরের শুরুতে বিশ্বে প্রথমবারের মতো সফলভাবে একজনের পুরুষাঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়৷

আফগানিস্তানে নিয়োজিত মার্কিন এক সৈন্যের পুরুষাঙ্গ বোমার আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়৷ চিকিৎসকরা সেটাই প্রতিস্থাপনের চেষ্টা করবেন৷ প্রায় ১২ ঘণ্টা ধরে এই অস্ত্রোপচার চলতে পারে৷ এই সময় মারা যাওয়া কোনো এক পুরুষের লিঙ্গ ঐ সৈন্যের দেহে স্থাপন করা হবে৷ চিকিৎসকরা আশা করছেন, এর মাধ্যমে আহত ঐ সৈন্য আবারও ঠিকভাবে মূত্রত্যাগ করতে পারবেন৷ পরবর্তীতে যৌনমিলনেও সক্ষম হতে পারেন তিনি৷ কিন্তু বাবা হতে পারবেন না৷ কারণ অস্ত্রোপচারে শুধু লিঙ্গটিই ঠিক করা হবে, অণ্ডকোষ নয় – যেখান শুক্রাণু উৎপাদিত হয়৷ আগামী এক বছর কিংবা কয়েক মাসের মধ্যে এই অস্ত্রোপচার হতে পারে৷

নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকায় প্রথম সংবাদটি প্রকাশিত হয়৷ সেখানে জানানো হয়, ২০০১ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে ইরাক অথবা আফগানিস্তানে নিয়োজিত অন্তত ১,৩৬৭ জন সৈন্যের পুরুষাঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হয়৷

এদিকে, এএফপি জানিয়েছে চলতি বছরের শুরুতে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিশ্বের প্রথম সফল পুরুষাঙ্গ প্রতিস্থাপনের ঘটনা ঘটে৷ পরবর্তীতে ঐ পুরুষের বাবা হতে যাওয়ার খবরও প্রকাশিত হয়েছে৷ কারণ দক্ষিণ আফ্রিকার এই নাগরিকের অণ্ডকোষটি অক্ষত ছিল, মার্কিন সৈন্যের যেটা ছিল না৷

জেডএইচ/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন