আলোচনায় বসতে গ্রিসকে কড়া হুমকি এর্দোয়ানের | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 06.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

তুরস্ক

আলোচনায় বসতে গ্রিসকে কড়া হুমকি এর্দোয়ানের

রাজনীতি ও কূটনীতির পথে না এগুলে গ্রিসকে মাঠে জবাব দিবেন বলে হুমকি দিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিচেপ তাইয়েপ এর্দোয়ান৷ তুরস্ক যেকোন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি৷

সমুদ্রসীমা নিয়ে বিরোধের জেরে গ্রিস ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে৷ সংকট নিরসনে ন্যাটোর প্রস্তাবে আলোচনায় বসতে রাজি ছিল আঙ্কারা, কিন্তু প্রত্যাখ্যান করেছে এথেন্স৷ আর এতেই ক্ষেপেছেন এর্দোয়ান৷ আলোচনায় না বসলে গ্রিসকে তার ফলাফল ভোগ করতে হবে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি৷

ইস্তাম্বুলে একটি হাসপাতাল উদ্বোধন করতে গিয়ে এর্দোয়ান বলেন, ‘‘অনৈতিক মানচিত্র আর নথি ছিঁড়ে ফেলার জন্য তুরস্কের যে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামরিক শক্তি আছে সেটা তারা (গ্রিস) অনুধাবন করতে পারবে৷’’

পূর্ব ভূমধ্যসাগর থেকে তেল উত্তোলন নিয়ে এই বিরোধের সূচনা৷ গ্রিস এবং সাইপ্রাস এই এলাকাকে নিজেদের বলে দাবি করেছে৷ তেল উত্তোলনের জন্য ড্রিলিং পরিচালনা করে তুরস্ক তাদের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ দেশ দুটির৷ এর জেরে বিতর্কিত অঞ্চলটিতে তিন পক্ষই তাদের সামরিক শক্তি প্রদর্শন করে যাচ্ছে৷ গত মাসে তুরস্ক আর গ্রিসের ফ্রিগেটের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটনাও ঘটেছে৷

এমন প্রেক্ষিতে এর্দোয়ন গ্রিসকে হুমকি দিয়ে বলেছেন, ‘‘তারা হয় রাজনীতি ও কূটনীতির ভাষা বুঝবে, নয়তো মাঠে যন্ত্রণাদায়ক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হবে৷’’ তুরস্ক আর তার জনগণ যেকোন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত বলেও উল্লেখ করেন তিনি৷

এদিকে তুরস্কের সংবাদপত্র জুমহুরিয়েত জানিয়েছে, সিরিয়া সীমান্ত থেকে এরিমধ্যে ৪০ টি ট্যাংক উত্তর পশ্চিম তুরস্কের সীমানায় স্থানান্তর করা হয়েছে৷ ইউরোপীয় ইউনিয়ন বলেছে তুরস্ক ‘অবৈধ’ কোন পদক্ষেপ নিলে দেশটির বিরুদ্ধে নিষেধজ্ঞা আরোপ করা হতে পারে৷ তবে এর্দোয়ান বলেছেন, যেকোন পরিণাম ও ফলাফলের মুখোমুখি হতে তুরস্ক প্রস্তুত৷

এফএস/এডিকে (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন