আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা ফেরানোই বড় চ্যালেঞ্জ | বিশ্ব | DW | 12.06.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

আর্থিক খাতে শৃঙ্খলা ফেরানোই বড় চ্যালেঞ্জ

২০১৯-২০ অর্থবছরে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আসছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে বাজেট বক্তব্য পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী৷ তবে বিশ্লষেকরা বলছেন...

 আর্থিক খাতের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনাটাই হবে জাতীয় বাজেটের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ৷ গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) বলছে, গত এক দশকে এবারই দেশের সামষ্টিক অর্থনীতিসবচেয়ে চাপে আছে৷ তবে, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের কথা হলো,বাজেটের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রস্তুত আছে সরকার৷

অডিও শুনুন 04:06

ঋণ নিয়ে ফেরৎ দিচ্ছে না ঋণগ্রহীতারা এবং দিনে দিনে টাকার অংকটা বড় হচ্ছে:সালেহ উদ্দিন

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গর্ভনর ড. সালেহ উদ্দিন আহমেদের মতে, ‘আর্থিক খাতে ভয়াবহ বিশৃঙ্খলা বিরাজ করছে৷' তার মতে, ‘ঋণ নিয়ে ফেরৎ দিচ্ছে না ঋণগ্রহীতারা এবং দিনে দিনে টাকার অংকটা বড় হচ্ছে৷ যা অর্থনীতির জন্য বড় চাপ।' তবে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের কারণে ব্যাংকে তারল্য সংকট হয় না বলেও জানান তিনি৷

অডিও শুনুন 04:26

ঋণ আদায় না হলে সুফল মিলবে না, ব্যাংকিং খাতে আমূল সংস্কার করতে হবে: ড. জাহিদ হোসেন

বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিসের প্রধান অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন বলেন, ‘সরকার শুধু সুদের হার নির্ধারণ করে দিলে হবে না। সুদের হার নির্ধারণের বিষয়গুলোতেও নজর দিতে হবে৷' ‘মন্দ ঋণ' কে বিষফোঁড়া উল্লেখ করে, ড. জাহিদ হোসেন বলেন, ঋণ আদায় না হলে সুফল মিলবে না৷ তার মতে, ব্যাংকিং খাতে আমূল সংস্কার করতে হবে।

এদিকে, বাজেট উপস্থাপনের আগে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অর্থমন্ত্রী৷ হাসপাতালে ভর্তি হতে হলেও, বুধবার বাসায় ফিরেছেন তিনি৷ তার মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা জানিয়েছন, বৃহস্পতিবার বাজেট উপস্থাপনের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত আছেন মন্ত্রী৷

অর্থমন্ত্রী হিসেবে, এবারই প্রথম বাজেট দিতে যাচ্ছেন মুস্তফা কামাল৷ মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ নিয়েই বাজেট তৈরি করেছেন অর্থমন্ত্রী৷ ‘সমৃদ্ধির সোপানে বাংলাদেশ, সময় এখন আমাদের'-শিরোনামের এই বাজেটকে ‘স্মার্ট বাজেট' বলছেন অর্থমন্ত্রী নিজেই৷

মঙ্গলবার, বাজেট নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সিপিডি৷ সিপিডির সম্মানীয় ফেলো দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য বলেন, ‘সামষ্টিক অর্থনীতিতে চিড় ধরছে, আর এর সংস্কার করাটা বড় চ্যালেঞ্জ।' রাজস্ব আহরণ, ব্যাংকিং খাত সংস্কার এবং টাকার বিনিময় হার নমনীয় করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন তিনি৷ দেবপ্রিয়র মতে, আওয়ামী লীগের গত এক দশকের সরকার পরিচালনায় যে অগ্রগতি হয়েছে, তা এখন ‘সীমান্ত রেখায় উপনীত' হয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন