আরো এক জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত নেই | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 25.03.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

আরো এক জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত নেই

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে আরো এক ব্যক্তি মারা গেছে৷ এ নিয়ে পাঁচ জন মারা গেলেন৷ তবে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন রোগী শনাক্ত হয়নি৷

সুস্থ হয়ে উঠেছেন আরো দুই জন৷ এ নিয়ে দেশে মোট সাতজন কোভিড-১৯ রোগী ‍সুস্থ হয়ে উঠলেন৷ মোট আক্রান্ত ৩৯৷

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের-আইইডিসিআর পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বুধবার অনলাইন ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান বলে জানায় বাংলাদেশে ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম৷

সর্বশেষ মারা যাওয়া রোগী পুরুষ, বয়স ৬৫ বছর৷ তিনি বুধবার সকালে মারা যান৷ বিদেশফেরত করোনা আক্রান্ত অন্য একজনের পরিবারের সদস্য ছিলেন তিনি৷ গত ১৮ মার্চ তাঁর রোগ শনাক্ত হয় বলে জানান মীরজাদী৷

বলেন, ‘‘প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে আইসোলেশনে রেখে তাঁর চিকিৎসা চলছিল৷ কিন্তু অবস্থার অবনতি হলে ২১ মার্চ তাঁকে ঢাকার কুয়েত মৈত্রী ‍হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছিল৷ তাঁর ডায়বেটিস ও উচ্চরক্তচাপ ছিল৷''

গত ২৪ ঘণ্টায় ৮২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হলেও নতুন করে কারো করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েনি বলেও জানান তিনি৷

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত শুধু আইইডিসিআরে করোনা ভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা করা হয়৷ শিগগিরই বিভাগীয় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালগুলোতে পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান মীরজাদী৷

আইইডিসিআরের হটলাইন নম্বরগুলোতে দীর্ঘসময় যোগাযোগের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি বিভিন্ন নম্বরে বিচ্ছিন্নভাবে যোগাযোগ না করে (০১৯৪৪৩৩৩২২২) ও (১০৬৫৫) নম্বর দুটিতে ফোন করার পরামর্শ দিয়েছেন৷ সেখান থেকে খালি থাকা নম্বরে কল ট্রান্সফার করা হবে৷

করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশে সব সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে৷ হাসপাতাল, ফায়ারসার্ভিসসহ জরুরি সেবা প্রতিষ্ঠান এই ছুটির আওতায় পড়বে না৷ খোলা থাকবে ব্যাংক৷ গার্মেন্টসের বিষয়ে এখনো কোনো নির্দেশনা আসেনি৷

ছুটির এ সময়ে সরকার জনগণকে অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে না যাওয়ার এবং পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে৷

জনগণের যাতায়াত বন্ধ করতে এরই মধ্যে সারাদেশে ট্রেন ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে৷ ২৬ তারিখ থেকে বাস চলাচলও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তার জন্য সারাদেশে মঙ্গলবার থেকেই সেনা মোতায়েন করা হয়েছে৷

এসএনএল/এসিবি (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন