আবার অস্ট্রেলিয়া, নাকি নতুন চ্যাম্পিয়ন? | বিশ্ব | DW | 11.07.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপ ক্রিকেট

আবার অস্ট্রেলিয়া, নাকি নতুন চ্যাম্পিয়ন?

উড়ন্ত ভারত মুখ থুবড়ে পড়েছে সেমিফাইনালে৷ ফাইনালেও কি জিতবে নিউজিল্যান্ড? নাকি অবশেষে ইংল্যান্ড? নাকি হাফ ডজন হয়ে যাবে অস্ট্রেলিয়ার? ফাইনালের বেশ আগেই ভাবনাটা বেশ ঘুরপাক খাচ্ছে৷

মনে হয় অস্ট্রেলিয়াকে হয়ত আর রোখা যাবে না৷ ৪৪ বছর আগে প্রথম বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে সেই যে হেরেছিল, ফাইনালে আর কখনোই কিন্তু হারেনি ওরা৷ বিশ্বকাপে ওরা এত ধারাবাহিক যে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হওয়ার আগেই ওদের ফাইনালে দেখাও শুরু হয়ে গেছে৷ বড় আসরের পরিসংখ্যান বারবার উঁকি দিচ্ছে, ভোলা যাচ্ছে না গ্রুপ পর্বে আরন ফিঞ্চদের কাছে মর্গানদের নাস্তানাবুদ হওয়ার টাটকা স্মৃতিটাও৷ অথচ এবার অস্ট্রেলিয়াও কিন্তু হেরেছে৷ একবার নয়, দুবার৷ একবার ভারতের কাছে, আর গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আরেকবার সাউথ আফ্রিকার কাছে৷ সুতরাং অস্ট্রেলিয়া তো হারতেই পারে! কোহলিদের মতো ফিঞ্চ, স্মিথ, ওয়ার্নার, স্টার্কদেরও বিদায়ঘণ্টা বেজে যেতে পারে সেমিফাইনালেই!

তবু মন বলছে ১৯৮৭, ১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭ এবং ২০১৫-র পর ২০১৯-ও হবে৷ এ যে অস্ট্রেলিয়া! ভাংবে, তবু মচকাবে না, আগের হার মাথায় নিয়ে মাঠে ওরা নামবে না৷ সুতরাং, দুটো ম্যাচ ওরা জিততেই পারে৷

অস্ট্র্রেলিয়াকে আগেই ফাইনালে দেখতে শুরু করার কারণ শুধু অস্ট্রেলিয়া নয়৷ ইংল্যান্ডও৷ ইংল্যান্ড তো ফুটবল, ক্রিকেট দু' জায়গাতেই এক৷ ভালো খেলে, সমর্থকেরা অহঙ্কার করে, কিন্তু ট্রফি ছুঁতে পারে না৷ ফুটবলে তো তবু একবার সেই সৌভাগ্য হয়েছে৷ ক্রিকেটে তা-ও নয়৷ তিনবারের ফাইনালিস্ট, তিনবারই রানার্সআপ৷ তবে মর্গানবাহিনি এবার ঠিকই আশায় বুক বাঁধছে৷

একবার আয়োজক হওয়ার সুবাদে ফুটবল বিশ্বকাপ জিতেছিলেন ববি মুর, গর্ডন ব্যাঙ্কস, জিওফ হার্স্টরা৷ ক্রিকেটে এমন মওকা অবশ্য ইংল্যান্ড আগেও পেয়েছে৷ ফাইনালেও উঠেছে৷ ব্যস, ওই পর্যন্তই৷

কিন্তু এবার কি ইতিহাসটা নতুন করে লেখা হতে পারে না? অবশ্যই পারে৷ বিশ্বকাপের আগে তো লম্বা একটা সময় দুর্দান্ত খেলেছে ইংল্যান্ড৷ দুটো ম্যাচ সেই ছন্দ পেলেই...৷

ক্রিকেটের দুই ‘বড় ভাই'-কে নিয়ে একটু বেশি বলা হয়ে গেল৷ ক্ষতি নেই তাতে৷ নিউজিল্যান্ডকে নিয়ে কথা একটু কম হলেও চলবে৷ কথা তো অনেক হয়েছে৷ দীর্ঘদিন বলা হয়েছে, ‘‘ওরা বড়জোর সেমিফাইনালের দল৷ সেমিফাইনালে ওরা হারবেই৷''

২০১৫ সালে সেই দুর্নাম ঘুচেছে৷ টানা দ্বিতীয় ফাইনালে তারাও পারে শেষ হাসি হাসতে৷ অনুপ্রেরণা পেতে পারে অস্ট্রেলিয়ার কাছেই৷ ৪৪ বছর আগে অস্ট্রেলিয়াও হেরেছিল ফাইনালে৷ তারপর? প্রথমবারের ব্যর্থতা মুছে দিয়ে ব্ল্যাক ক্যাপরা টুপি খোলা অভিবাদন তো এবার পেতেই পারে!

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন