আফগান হিন্দু এবং শিখদের গুরুত্ব দেবে ভারত | বিশ্ব | DW | 17.08.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

আফগান হিন্দু এবং শিখদের গুরুত্ব দেবে ভারত

আফগানিস্তানের হিন্দু এবং শিখদের জন্য ভারতের দরজা খোলা। জানালো ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। পাশাপাশি উদ্ধার করা হবে আফগানিস্তানে আটকে পড়া ভারতীয়দের।

আফগানিস্তান নিয়ে মুখ খুলল ভারত। সোমবার দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আফগান পরিস্থিতির দিকে নজর রাখা হচ্ছে। সেখানে আটকে পড়া ভারতীয়দের উদ্ধারে সমস্ত রকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি আফগানিস্তানে বসবাসকারী শিখ এবং হিন্দুদের ভারতে আশ্রয় দেওয়ার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত গুরুত্ব দেওয়া হবে। তবে এখনই তাদের ভারতে আনা সম্ভব নয়। বিমান যোগাযোগ চালু হলে তাদের কথা ভাবা হবে।

সোমবার রাত পর্যন্ত কাবুলের ভারতীয় দূতাবাসে বেশ কিছু কর্মী এবং সেনা আটকে ছিলেন। তালেবান কাবুলে কার্ফিউ ঘোষণা করায় তাদের বিমানবন্দরে আনা যাচ্ছিল না। মঙ্গলবার সকালে তাদের উদ্ধার করা গেছে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্র জানিয়েছে। তাদেরকে বিমানবন্দরে নিয়ে আসা হয়েছে। সেখানে আগেই ভারতীয় সেনার বিমান রাখা ছিল। তাতে করেই তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচী জানিয়েছেন, আফগান শরণার্থীদের ভারতে স্থান দেওয়া হবে। তবে গুরুত্ব দেওয়া হবে হিন্দু এবং শিখদের ক্ষেত্রে। পাশাপাশি আফগানিস্তানে একাধিক ভারতীয় মিশনে যে আফগানরা কাজ করতেন, তাদেরকেও জরুরি ভিত্তিতে ভারতে আসার সুযোগ করে দেওয়া হবে। আফগান পরিস্থিতির দিকে ভারত কড়া নজর রাখছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

বিমানবন্দরের অবস্থা

হাজার হাজার মানুষ আফগানিস্তান ছেড়ে পালাতে চাইছেন। সোমবার বহু মানুষ কাবুল বিমানবন্দরে রানওয়ের উপরে চলে আসেন। মার্কিন সেনা বাধ্য হয়ে শূন্যে গুলি ছোড়ে। হুড়োহুড়িতে সাতজনের মৃত্যু হয়। এরপর মার্কিন সেনা বিমানবন্দর বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিমান চলাচল বন্ধ হওয়ায় আপাতত আফগান নাগরিকদের বিমানে তোলা যাচ্ছে না। বিমান চলাচল শুরু হলে ফের তাদের জন্য ব্যবস্থা করা হবে। তবে আফগানরা যাতে দ্রুত দেশ ছাড়তে পারে, তার জন্য ইলেকট্রনিক ভিসার কথা ঘোষণা করেছে ভারত। ফাস্টট্র্যাক ভিসার সাহায্যে আরো সহজে ভারতে আসতে পারবেন আফগানরা।

অ্যামেরিকা এবং ন্যাটো বাহিনী আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার শুরু করার পরেই ভারত ধীরে ধীরে সে দেশ থেকে ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে শুরু করে। দূতাবাসের কর্মী সংখ্যাও অর্ধেক করে দেওয়া হয়। বেশ কিছু কনসুলেট বন্ধ করে দেওয়া হয়। ভারতীয়দের পাশাপাশি বেশ কিছু আফগানকেও ভারতে আসার সুযোগ করে দেওয়া হয়। তবে রোববার থেকে পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বদলে গেছে।

জয়শঙ্কর-ব্লিংকেন কথা

মার্কিন পররাষ্ট্র সচিব ব্লিংকেনের সঙ্গে ফোনে কথা হয়েছে জয়শঙ্করের। আফগান পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে ব্লিংকেন ভারত ও পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের ফোন করেন এবং কথা বলেন।

সোমবারই অ্যামেরিকা পৌঁছেছেন ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর। ইতিমধ্যেই জাতিসংঘে একাধিক বৈঠকে যোগ দিয়েছেন তিনি। দ্বিপাক্ষিক বৈঠকও শুরু হয়েছে। জয়শঙ্কর টুইট করে জানিয়েছেন, আফগানিস্তানে হিন্দু এবং শিখ কমিউনিটির প্রতিনিধিদের সঙ্গে ভারত নিয়মিত যোগাযোগ রাখছে। এখনো আটকে থাকা ভারতীয়দের জন্য একটি হেল্পলাইন নম্বরও চালু করা হয়েছে।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই, রয়টার্স, এনডিটিভি)