আফগানিস্তানে মসজিদ ও মাদ্রাসায় হামলা, নিহত ৩৩ | বিশ্ব | DW | 23.04.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

আফগানিস্তানে মসজিদ ও মাদ্রাসায় হামলা, নিহত ৩৩

আফগানিস্তানের উত্তরে একটি মসজিদ আর একটি মাদ্রাসায় শুক্রবার বোমা হামলায় অন্তত ৩৩ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে তালেবান কর্তৃপক্ষ৷

মাজার-ই-শরিফ

মাজার-ই-শরিফ

তালেবানের সংস্কৃতি ও তথ্য উপমন্ত্রী জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, কুন্দুজ প্রদেশের ইমাম সাহেব শহরে ওই হামলায় আহত হয়েছেন আরও ৪৩ জন৷ আহত ও নিহতদের বেশিরভাগই মাদ্রাসা শিক্ষার্থী৷

কেউ এই হামলার দায় স্বীকার না করলেও আফগানিস্তানের ইসলামিক স্টেট একদিন আগে শিয়া মসজিদসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় সিরিজ বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে৷ গত বৃহস্পতিবার মাজার-ই-শরিফে শিয়া মুসলিমদের একটি মসজিদে বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ৩১ জন নিহত ও আরও ৮৭ জন আহত হন৷ 

শুক্রবারের এই হামলাকে জাতিসংঘ ‘ভয়াবহ' বলে উল্লেখ করেছে৷ আফগানিস্তানে জাতিসংঘের বিশেষ উপ-প্রতিনিধি রমিজ আলাকবারোভ একটি টুইটে বলেছেন, ‘‘অবিলম্বে এই হত্যাকাণ্ড বন্ধ হওয়া উচিত এবং এই ঘটনার ন্যায়বিচার হওয়া উচিত৷''

গত আগস্টে ক্ষমতা দখলে নেয়ার পর থেকেই স্থানীয় ইসলামিক স্টেটের সাথে দ্বন্দ্বে লিপ্ত তালেবান৷ গত অক্টোবরে কুন্দুজের শিয়া মসজিদে ৫০ জন নিহতের ঘটনার দায় স্বীকার করেছিল স্থানীয় আইএস-কে৷ নভেম্বরে পূর্বাঞ্চলের নানগড়হার প্রদেশে আইএস-কের গোপন ঘাঁটিগুলোতে হামলা চালায় তালেবানের গোয়েন্দা ইউনিট৷ ধারণা করা হয় সেখানেই আইএস-কের সদরদপ্তর৷ এরপর থেকে আইএস-কে মোটামুটি নিষ্ক্রিয় ছিল৷ কিন্তু চলতি মাসের শুরু থেকে আবারও সক্রিয় হয়েছে তারা৷ এদিকে, তালেবান জানিয়েছে, বাল্ক প্রদেশ থেকে তারা আইএস-কের সাবেক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে৷

এপিবি/এফএস (এপি, এএফপি, রয়টার্স)