আফগানিস্তানে মসজিদে বিস্ফোরণ, নিহত ৩৩ | বিশ্ব | DW | 15.10.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

আফগানিস্তানে মসজিদে বিস্ফোরণ, নিহত ৩৩

শুক্রবার জুমার নামাজের সময় আফগানিস্তানের কান্দাহারে বিবি ফাতিমা মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় অন্তত ৩৩ জন নিহত এবং ৯০ জন আহত হয়েছে৷

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

কী কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি৷ তবে এটি একটি আত্মঘাতী বোমা হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে৷

আফগানিস্তানে কুন্দুজের একটি শিয়া মসজিদে একই ধরনের বোমা বিস্ফোরণের ঘটনার ঠিক এক সপ্তাহের মাথায় এ ঘটনা ঘটলো৷ এখনো কেউ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি৷

মসজিদের ভেতরের ছবিতে জানালার ভাঙা কাঁচ এবং মাটিতে লাশ পড়ে থাকতে দেখা গেছে৷ অনেকেই মেঝেতে শুয়ে কাতরাতে থাকা আহতদের সাহায্যে এগিয়ে যান৷

প্রত্যক্ষদর্শীরা মসজিদের প্রধান ফটকে তিনটি বিস্ফোরণের শব্দ শুনতে পাওয়ার কথা জানিয়েছে৷ বিস্ফোরণের সময় মসজিদ লোকে লোকারণ্য ছিল৷ ঘটনাস্থলে অন্তত ১৫টি অ্যাম্বুলেন্স দেখা গেছে৷ আহতদেরকে স্থানীয় মিরওয়াইস হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে৷

কান্দাহারের এক স্থানীয় সাংবাদিক বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে  জানান, প্রত্যক্ষদর্শীরা তিন আত্মঘাতী হামলাকারীর হামলা চালানোর বর্ণনা দিয়েছে৷ এক হামলাকারী মসজিদের প্রবেশপথে নিজেকে উড়িয়ে দেয় এবং অন্য দুইজন মসজিদের ভেতরে বিস্ফোরক ডিভাইসের বিস্ফোরণ ঘটায়৷

গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় কুন্দজ শহরের শিয়া মসজিদে বোমা হামলায় শতাধিক মানুষ হতাহত হয়৷ পরে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) সেই এহামলার দায় স্বীকার করে৷

এবার কান্দাহারের মসজিদে বিস্ফোরণের জন্যও তালেবানের ঘোর বিরোধী ইসলামিক স্টেটের আফগান শাখা আইএস খেরাসানকেই (আইএস-কে) সন্দেহ করা হচ্ছে৷

আইএস-কে গোষ্ঠীর সুন্নি যোদ্ধারা শিয়া সংখ্যালঘুদের নিশানা করে হামলা চালায়৷ এর আগে মসজিদ, স্পোর্টস ক্লাব ও স্কুলেও আত্মঘাতী হামলা চালিয়েছে তারা৷ সাম্প্রতিক সময়ে সুন্নি যোদ্ধারা তালেবানের বিরুদ্ধে হামলার মাত্রা বাড়িয়েছে

এনএস/এসিবি 

নির্বাচিত প্রতিবেদন