আফগানিস্তানের প্রথম নারী কোডারদের কথা | বিশ্ব | DW | 11.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

আফগানিস্তানের প্রথম নারী কোডারদের কথা

আফগানিস্তানের হেরাত প্রদেশের একটি কম্পিউটার কেন্দ্রে মেয়েরা নানা বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে৷ মাদকের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সচেতনতা জাগাতে একটি ভিডিও গেমস বানিয়েছেন তাঁরা৷

‘ফাইট অ্যাগেন্সট ওপিয়াম' গেমটিতে এক আফগান সেনা নিয়ে মাদকের বিরুদ্ধে লড়াই করা যাবে৷ ২০ বছরের খাতেরা মোহাম্মদি এই গেম তৈরির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন৷ এই গেম তরুণদের মাদকের বিরুদ্ধে সচেতন হতে সহায়তা করবে৷

মোহাম্মদি জানান, তাঁর এক ভাই মার্কিন সেনাদের সঙ্গে অনুবাদক হিসেবে কাজ করেছিলেন৷ ভাইয়ের কাছ থেকে তিনি প্রতিদিন পপি চাষ, ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণ, মাদক পাচারকারী ইত্যাদি সম্পর্কে শুনেছেন৷ গেম তৈরির সময় সেই বিষয়গুলো তাঁর কাজে লেগেছে বলে জানান মোহাম্মদি৷ তাইতো গেমটি তৈরি হওয়ার পর প্রথম ভাইকেই সেটি খেলতে দিয়েছিলেন তিনি৷ নিরাপত্তার খাতিরে ভাইয়ের পুরো নামটি প্রকাশ করেননি মোহাম্মদি৷

জাতিসংঘের হিসেবে, বিশ্বে পপি চাষে আফগানিস্তান শীর্ষে রয়েছে৷ এমনকি বাকি অন্যসব দেশে যে পরিমাণ পপি চাষ হয়, আফগানিস্তানে হয় তার চেয়ে বেশি৷ পপি থেকে পরে আফিম ও হেরোইন উৎপাদিত হয়৷ জঙ্গি গোষ্ঠী তালেবান পপি চাষের সঙ্গে জড়িত৷

ভিডিও দেখুন 01:56

আফগান মেয়েদের জন্য কম্পিউটার শেখার কেন্দ্র

হেরাত শহরের কম্পিউটার কেন্দ্রটির নাম ‘কোড টু ইন্সপায়ার' বা সিটিআই৷ প্রায় ৮০ জন নারী সেখানে ভিডিও গেমস তৈরি, অ্যাপস তৈরি, ওয়েবসাইট বানানো, গ্রাফিক্স ডিজাইন ইত্যাদি নানান বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন৷ ফেরেশতে ফরগ নামে হেরাত বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এক শিক্ষক শুধু মেয়েদের জন্য এই প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি প্রতিষ্ঠা করেন৷ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ফরগ ইরানে জন্ম নেয়া আফগান শরণার্থী ছিলেন৷

সিটিআই এর প্রোজেক্ট ম্যানেজার হাসিব রাসা জানান, ‘‘আফগানিস্তানে মেয়েদের জন্য চাকরি পাওয়া এবং ঘরের বাইরে গিয়ে কাজ করা সহজ নয়৷ কিন্তু এখানে প্রশিক্ষণ নেয়ার পর মেয়েরা ঘরে বসে ল্যাপটপে কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারবো৷'' পুরো আফগানিস্তানে এমন স্কুল ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি৷

কেন্দ্রের প্রশিক্ষক অজিতা আজিমি বলেন, ‘‘মেয়েদের জন্য প্রযুক্তিগত জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন করার ভালো সুযোগ এটি৷ এখানে এসে মেয়েরা তাঁদের দক্ষতা বাড়িয়ে নিতে পারে৷''

বিশ বছরের আরেক প্রশিক্ষণার্থী ফ্রাহনাজ ওসমানি ঠিক সেই কাজটি করছেন৷ তিনি গ্রাফিক ডিজাইন শিখছেন৷ তাঁর ইচ্ছা আফগান নারী চরিত্রের স্টিকার বানানো৷ ‘‘আমরা যখন বন্ধুদের সঙ্গে চ্যাট করি তখন বাইরের স্টিকার ব্যবহার করি৷ এখানে প্রশিক্ষণ নিয়ে আমরা নিজেদের স্টিকার বানাবার আশা করছি৷ তাহলে আমরা সেগুলো দিয়ে চ্যাট করতে পারব৷ এর ফলে বিশ্বও দেখবে যে, আফগান মেয়েরাও কিছু করতে পারে,'' বলেন ওসমানি৷

১৮ বছরের সামিরা আনসারি প্রথম যখন কোডিং এর কথা শোনেন তখন অবাক হয়েছিলেন৷ কিন্তু এখন তিনি কোডিং শিখে ওয়েব ডিজাইনার হতে চান৷ আনসারি বলেন, ‘‘যখন জানলাম কোডিং শেখার পরই মানুষ ওয়েবসাইট ডিজাইনের মতো সৃষ্টিশীল কাজ করতে পারে , তখন আমিও এর প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ি৷''

এ বিষয়ে আপনার কোন মন্তব্য থাকলে লিখুন নীচে মন্তব্যের ঘরে৷

জেডএইচ/ডিজি (এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

বিজ্ঞাপন