আফগানদের দেশ ছাড়তে নিষেধ তালেবানের | বিশ্ব | DW | 25.08.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

আফগানদের দেশ ছাড়তে নিষেধ তালেবানের

আফগান নাগরিকদের কাবুল বিমানবন্দরে আসতে নিষেধ করল তালেবান। অ্যামেরিকার কাছেও একই আর্জি জানানো হয়েছে।

তালেবান শাসনে আফগানিস্তানের সামাজিক চিত্র কেমন হবে, তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে আলোচনা চলছে। শিক্ষা-স্বাস্থ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রে আফগানিস্তান কী ভূমিকা নেবে, তা-ও আলোচনার বিষয়। এই পরিস্থিতিতে তালেবান মুখপাত্রের সাম্প্রতিক বক্তব্য গুরুত্বপূর্ণ। মঙ্গলবার তিনি দুইটি বিষয় স্পষ্ট করে দিয়েছেন। মার্কিন বাহিনীকে ৩১ অগাস্টের মধ্যে দেশ ছাড়তেই হবে। এবং আফগানরা যেন কাবুল বিমানবন্দরে না আসেন। তার বক্তব্য, বিশেষ করে স্কিলড নাগরিকদের আফগানিস্তানে প্রয়োজন। ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ারদের আগামী দিনের আফগানিস্তানে প্রয়োজন। ফলে তারা যেন দেশ ছেড়ে কোথাও না যান।

অ্যামেরিকা এবং ন্যাটোর কাছেও একই আবেদন জানিয়েছে তালেবান। বলা হয়েছে, তারা যেন 'আফগান এক্সপার্ট' অর্থাৎ, ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তারদের নিজেদের দেশে না নিয়ে যান।

তালেবানের এই বক্তব্য নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। সম্প্রতি আফগানিস্তান থেকে ভারতে এসেছেন আহমেদ গনি। পেশায় চিকিৎসক। ডিডাব্লিউকে তিনি জানিয়েছেন, ''তালেবানের আশঙ্কা, গুরুত্বপূর্ণ পেশার সঙ্গে যুক্ত অধিকাংশ মানুষই দেশ ছাড়ছেন। সে কারণেই এই নির্দেশ জারি করতে হয়েছে।'' কিন্তু পেশাজীবীরা কি তা মানবেন? গনির বক্তব্য, পুরনো তালেবান শাসন যারা দেখেছেন, তারা কেউ আফগানিস্তানে থাকতে চাইছেন না। গনিকেও এক সময় তালেবান বন্দি করেছিল। সেই ইতিহাস বলে চিকিৎসকের বক্তব্য, ''কে চাইবে অনিশ্চয়তা এবং কড়া অনুশাসনের মধ্যে জীবন কাটাতে?'' গনির বক্তব্য, তালেবান শাসনে নারীদের অবস্থান কী হবে, তা-ও এখনো স্পষ্ট নয়। এই অনিশ্চয়তা কোনো শিক্ষিত মানুষের পক্ষে মেনে নেওয়া মুশকিল। সে কারণেই অনেকে দেশ ছাড়ার চেষ্টা করছেন।

এসজি/জিএইচ (রয়টার্স, আল জাজিরা)

সংশ্লিষ্ট বিষয়