আফগানদের ওপর পাকিস্তানি হ্যাকারদের হামলার কথা জানালো ফেসবুক | বিশ্ব | DW | 17.11.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

আফগানিস্তান

আফগানদের ওপর পাকিস্তানি হ্যাকারদের হামলার কথা জানালো ফেসবুক

আফগানিস্তানে যখন তালেবান ফিরছে, তখন সাবেক সরকারপন্থিদের বিরুদ্ধে সক্রিয় ছিল পাকিস্তানি হ্যাকাররা৷ সরকারি কর্মচারি, সেনা কর্মকর্তা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য- কেউ  রেহাই পাননি হ্যাকারের হামলা থেকে৷

এক সাক্ষাৎকারে ফেসবুকের সাইবার এসপিওনাজ ইনভেস্টিগেশনের পরিচালক মাইক ডিভিলানস্কি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ তথ্য জানান৷

মূল অভিযোগ সাইড-কপি নামের পাকিস্তানি এক হ্যাকার গ্রুপের বিরুদ্ধে৷ গ্রুপটিকে আগস্টেই ফেসবুক থেকে সরানো হয়৷

তবে তার আগে যখন আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সৈন্য পুরোপুরি প্রত্যাহারের শেষ ধাপ চলছে, দ্রুত কাবুলের দিকে এগিয়ে আসছে তালেবান, সাইড-কপি গনি সরকারের ঘনিষ্ট বিভিন্ন ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে চূড়ান্ত হামলাটা চালাচ্ছিল তখন৷ ফেসবুক এবং কিছু ওয়েবসাইটে নানা ধরনের চটুল খবর এবং সুন্দরী নারীদের ছবি দিয়ে তাদের সঙ্গে সংযোগ ঘটানোর প্রলোভন দেখিয়ে অনেক মানুষকে ফাঁদে ফেলে তারা৷ আকৃষ্ট বা আগ্রহী হয়ে ক্লিক করর পরই তাদের সব তথ্য জেনে যাচ্ছিল হ্যাকাররা৷ এমনকি যে ডিভাইস থেকে আফগানরা ক্লিক করছিলেন, সেগুলোকেও নেয়া হচ্ছিলো নজরদারির আওতায়৷

মাইক ডিলিয়ানস্কি আরো জানান, এমন ঘটনা সম্পর্কে আগাম ধারণা করা মুশকিল হলেও হ্যাকারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার পাশাপাশি আফগান ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গত আগস্টেই নেয়া হয়েছিল৷

শুধু ফেসবুক নয়, টুইটার, অ্যালফাবেট, গুগল এবং মাইক্রোসফট ক্রপ-ও ঝুঁকিতে থাকা আফগান ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট একযোগে লক করে দেয় তখন৷

সাক্ষাৎকারে আরো জানানো হয়, আগস্টে তীব্রতা বাড়লেও পাকিস্তানি হ্যাকার গ্রুপের হামলা শুরু হয়েছিল গত এপ্রিলের দিকে৷

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আরো তদন্ত এবং আফগানিস্তানে অবস্থানরত নিজেদের কর্মীদের নিরাপত্তার স্বার্থে এতদিন বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ছাড়া আর কাউকে জানানো হয়নি৷

অক্টোবর মাসে সিরিয়ার দুটি হ্যাকার গ্রুপকেও নিষ্ক্রিয় করেছে ফেসবুক৷ গ্রুপ দুটির নাম সিরিয়ান ইলেক্ট্রিক আর্মি এবং এপিটি-সি-৩৭৷ ইলেক্ট্রিক আর্মি কাজ করে মানবাধিকার কর্মী এবং সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে আর এপিটি-সি-৩৭-র প্রধান লক্ষ্যবস্তু ফ্রি সিরিয়ান আর্মি এবং বাশার আল আসাদের বিরোধী শিবিরে যোগ দেয়া সাবেক সেনা সদস্যরা৷

এসিবি/ কেএম (রয়টার্স)

সংশ্লিষ্ট বিষয়