‘আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে চাপ বাড়বে, পরিবর্তন আসবে বাংলাদেশে’ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 28.01.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

‘আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে চাপ বাড়বে, পরিবর্তন আসবে বাংলাদেশে’

বাংলাদেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, গুমসহ মানবাধিকার ইস্যুতে সরব পশ্চিমা সমাজ ভবিষ্যতে বাংলাদেশের উপর আরো চাপ দিতে পারে বলে মনে করেন গণঅধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়া৷ ডয়চে ভেলের টকশোতে এই মন্তব্য করেন তিনি৷

‘ডয়চে ভেলে খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়’ টকশোতে আলোচক হিসেবে কিবরিয়ার পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এ আরাফাত৷ আওয়ামী লীগের সমর্থকরা প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে একের পর এক মামলা দায়ের করে ভয়ের সংস্কৃতি তৈরি করছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে আরাফাত বলেন, ‘‘ভয়ের সংস্কৃতি তৈরি এত সহজ না৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বাইডেন প্রশাসন উগ্রবাদী গোষ্ঠীর স্টুয়ার্ট রডস-সহ ১১ জনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা করেছে৷ তাহলে সেক্ষেত্রেও তো বিরোধী কণ্ঠস্বর রোধ করা হচ্ছে বলতে হবে৷''

অন্যদিকে, গণঅধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়ার দাবি, অবৈধ,অত্যাচারী অসৎ সরকার জোর করে ক্ষমতায় আছে৷ বিরুদ্ধ কথা বললেই আক্রমণ করা হচ্ছে৷ পাল্টা মোহাম্মদ এ আরাফাতের দাবি, প্রতিদিন বাংলাদেশে একাধিক টেলিভিশন সমালোচনা করে, আওয়ামী লীগের৷ সতখন তো কোনও মামলা হয়না৷ কিন্তু অন্ধকারের দল–এ জাতীয় কথায় সাম্প্রদায়িক উসকানি আছে৷ ঘৃণা ছড়ানোর বিষয় রয়েছে৷

কিবরিয়া অভিযোগ করেন, ‘‘লেখক মুশতাক আহমেদকে ইলেকট্রিক শক দেওয়া হয়েছিল কার্টুন শেয়ারের জন্য৷ পরবর্তীতে তার মৃত্যু হয়৷ বাংলাদেশে আওয়ামী লিগের হাতে অস্ত্র, ছাত্ররা গুন্ডা৷ যে কারও ক্ষতি করতে পারে আওয়ামী সরকার৷’’

টক শোতে উঠে এসেছে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন থেকে ব়্যাবকে বাদ দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে হিউম্যান রাইটস ওয়াচসহ একাধিক মানবাধিকার সংগঠনের চিঠি দেওয়ার বিষয়টি৷ ড. রেজা কিবরিয়ার মনে করেন, ‘‘এটি বাংলাদেশের জন্য অশনি সংকেত৷’’

ডয়চে ভেলের বাংলা বিভাগের প্রধান খালেদ মুহিউদ্দীনের এক প্রশ্নের উত্তরে মোহাম্মদ এ আরাফাত বলেন, ‘‘আওয়ামী লীগ করেন এমন অনেক এমপির বিরুদ্ধেও মামলা রয়েছে৷ মামলা যদি অন্যায়ভাবে না হয়, তাহলে ক্ষতি কী৷’’

তিনি বলেন, ‘‘প্যান্ডোরা, পানামায় বিএনপির নাম রয়েছে, আওয়ামী লীগের নাম নেই৷ চুরি ধরা পড়লে বাংলাদেশ উপকৃত হবে৷’’

ড. রেজা কিবরিয়া আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ‘‘বাংলাদেশের অর্থনীতি এ মুহূর্তে ঝুঁকিপূর্ণ৷ আমেরিকার চাপের ফলে বড়সড় প্রভাব পড়তে পারে অর্থনীতিতে৷’’

বাংলাদেশের ভিতরে কি সরকারের উপর বিরোধী দলের কোনও চাপ নেই? সঞ্চালক খালেদ মুহিউদ্দীনের এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি দাবি করেন, ‘‘খুন করে মানুষকে চুপ করিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ সত্যি প্রকাশ্যে আসা প্রয়োজন৷’’

ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘‘হাসিনা ও তার মন্ত্রীদের বিশ্ব সম্পর্কে জ্ঞান নেই৷ সারা বিশ্ব থেকে আরও বেশি চাপ আসতে পারে৷'' পরিবর্তন আসার দিকেও ইঙ্গিত করেন তিনি৷

তবে, মোহাম্মদ এ আরাফতের দাবি, ‘‘অভিযোগের সবটাই সূত্রহীন, ভিত্তিহীন৷’’

নির্বাচিত প্রতিবেদন