আজ হুইট মানডে: গোটা ইউরোপে ছুটির আমেজ | বিশ্ব | DW | 10.06.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইউরোপ

আজ হুইট মানডে: গোটা ইউরোপে ছুটির আমেজ

দুদিন ছুটির আলস্য ছেড়ে, সোমবার ৷ তড়িঘড়ি করে, ভোরে বন শহরে ট্রাম স্টেশনে আসতেই চোখে ধাঁধা লাগে৷ দোকান পাট বন্ধ, নেই অফিসমুখো লোকজনের ছুটাছুটি৷ ট্রাম স্টেশনে নেই অপেক্ষমান মানুষের জটলা৷ কেমন যেন অলস সকালের ডাক!

কর্মব্যস্ত দিনের এই দৃশ্য দেখে, শরণাপন্ন হতে হয় ইন্টারনেটের৷ জানা গেল, আজকের সোমবার ‘হুইট মানডে'৷  ছুটির দিন৷ সরকারি বেসরকারি সব প্রতিষ্ঠান তো বটেই, দোকান পাটও সব বন্ধ৷ সব কিছু তাই চলছে ধীরলয়ে৷

খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের এই দিনটি,  আমাদের অনেকের কাছেই অপরিচিত৷ ইতিহাস পাঠে জানা যায়, মূলত ইস্টার সানডে উদযাপনের ঠিক ৫০দিন পর পালন করা হয় পেন্টেকোস্ট৷ আর তার পরের দিনটাই হলো, হুইট মানডে৷ তাই, নির্ধারিত দিনের বদলে, ইস্টার সানডের হিসেব কষে দিনটি পালন করা হয়৷ খ্রিষ্ট ধর্ম মতে, পেন্টেকোস্টের দিন যিশুখ্রিস্টের দ্বাদশ শিষ্যদের মাঝে এসেছিলেন পবিত্র আত্মা৷ দিনটি কোথাও কোথাও পেন্টেকোস্টের দ্বিতীয় দিন কিংবা দ্বিতীয় হুইট সানডে নামেও পরিচিত৷

নিউ টেস্টামেন্টের মতে, পেন্টেকোস্টের আয়োজনে যোগ দিতে জেরুজালেম আসেন যিশুখ্রিস্টের দ্বাদশ শিষ্যরা৷ সেখানেই পবিত্র আত্মা এসে, যিশুর বাণী সাধারণ মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে শিষ্যদের নির্দেশ দেন৷ তার পরেই, এক ধর্মীয় সভায় তিন হাজার মানুষের সামনে যিশুর বাণী প্রচার করেন শিষ্য সেন্ট পিটার৷ অনেক খ্রিস্ট অনুসারীরা মনে করেন, ওই ঘটনার মধ্য দিয়েই গীর্জার জন্ম হয়৷

ধর্মীয় আচারের সঙ্গে নিজস্ব কিছু রীতি নীতিতে দিনটি পালন করে জার্মানরা৷  খ্রিস্ট ধর্ম মতে, হুইট সানডে আর হুইট মানডের মাঝের রাতটি অশান্তির রাত৷ তারা বিশ্বাস করেন, এ রাতে শয়তানের আত্মা জেগে উঠে, আর মানুষের সম্পদ চুরি করে৷ কিছু কিছু জনপদে, তরুণরাই শয়তান সেজে কৃষি যন্ত্রপাতি এদিক সেদিক করে, রাতটি উপভোগের প্রচলন রয়েছে৷ তবে মজার ব্যাপারা হলো, এ দিনটিতে বিশেষ কৌশলে পছন্দের পাত্রীকে  বিয়ের প্রস্তাব দেন তরুণরা৷ যে মেয়েটিকে বিয়ে করতে চায়, তার বাড়ির দেয়ালে পেড়েক মেরে রাখা হয়৷

ইউরোপের দেশে দেশে দিনটি ভাব-গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালন করা হয়৷ জার্মানি ছাড়াও, অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, সাইপ্রাস, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, গ্রিস, হাঙ্গেরি, আয়ারল্যান্ড, লুক্সেমবার্গ, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, সুইজারল্যান্ড ও ইউক্রেনে দিনটি সরকারি ছুটি হিসেবে পালিত হয়ে আসছে৷ এছাড়া অ্যান্টিগুয়া অ্যান্ড বারবুডা, গ্রেনাডা, টোগো, সোলোমন দ্বীপপুঞ্জ, সেন্ট লুসিয়া, সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস এবং সেন্ট ভিনসেন্টেও হুইট মানডে মানে ছুটি৷

২০২০ সালের ১ জুন পরের হুইট মানডে উদযাপন করবে খ্রিস্টধর্মানুসারীরা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন